Date : 2020-10-23

ফের বিপাকে রাকেশ আস্থানা

দিল্লি: ফের বিপাকে সিবিআইয়ের স্পেশাল ডিরেক্টর রাকেশ আস্থানা। ঘুষকান্ডে আস্থানার আর্জি খারিজ করল দিল্লি হাইকোর্ট। শুক্রবার আস্থানার বিরুদ্ধে ওঠা ঘুষের অভিযোগ সংক্রান্ত মামলায় দিল্লি আদালত জানায়,ঘুষকান্ডে তদন্ত চালাতে পারে সিবিআই। পাশাপাশি আস্থানার গ্রেফতারির ওপর থেকেও তুলে নেওয়া হয় নিষেধজ্ঞা। সিবিআইয়ের তরফ থেকে জানানো হয়েছে,১০ সপ্তাহের মধ্যে তদন্তের কাজ শেষ করবে তারা। এদিকে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে সিবিআই প্রধানের পদে ফিরলেও শেষরক্ষা হল না অলোক ভার্মার। পদে ফেরার মাত্র ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বাধীন একটি কমিটির সিদ্ধান্তের জেরে পদ খোয়ালেন প্রাক্তন সিবিআই প্রধান অলোক ভার্মা। সূত্রের খবর,সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে ক্ষমতা ফিরে পেতেই জেডি অজয় ভাটনগর, ডিআইজি এমকে সিনহা, ডিআইজি তরুণ গৌবা, জেডি মুরুগেশন, এডি একে শর্মা,এই ৫ অফিসারকে বদলির নির্দেশ দেন ভার্মা। এর পাশাপাশি ১০ অফিসারের বদলির নির্দেশ রদ করেন তিনি। এরপরই সরকারের অলিন্দে অসন্তোষ দানা বাঁধে। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বাধীন কমিটির বৈঠক বসে নরেন্দ্র মোদীর বাসভবনে। সূত্রের খবর,মল্লিকার্জুন খার্গে ছাড়া সকলেই অলোক ভার্মাকে সরিয়ে দেওয়ার পক্ষে রায় দেন। তবে ভার্মার অপসারণের পরই জোর সমালোচনা শুরু হয়েছে বিভিন্ন মহলে। অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন,অপসারণের আগে অলোক ভার্মাকে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দেওয়া হল না কেন? প্রসঙ্গত,গত অক্টোবর মাসে অলোক ভার্মাকে বাধ্যতামূলকভাবে ছুটিতে পাঠায় কেন্দ্র। সুপ্রিম কোর্ট সেই নির্দেশ খারিজ করে। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে অলোক ভার্মাকে সিবিআই প্রধানের পদে ফেরানো হয়। কিন্তু এও বলা হয়,প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বাধীন কমিটি ভার্মাকে নিয়ে সিদ্ধান্ত না নেওয়া পর্যন্ত তিনি কোনও সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন না। ইতিমধ্যেই অলোক ভার্মাকে সরানোর সিদ্ধান্ত নিয়ে মোদী সরকারকে একহাত নিয়েছে কংগ্রেস।