Date : 2020-12-01

জানেন কি ক্যন্সার ঠেকাতে পারে বাঁধাকপি!

বাঁধাকপি সম্পর্কে অনেকের মনেই অনেক ধন্দ কাজ করে| সবুজ সব্জি, তাই বাচ্চাদের তো অবশ্যই না পসন্দের তালিকায় আছে বাঁধাকপি। অথচ না না রকম সুস্বাদু পদ তৈরী করতে বাঁধাকপির কোন তুলনা নেই। অনেকে আবার চিকিৎসকের নিষেধে ভাবছেন এই শীতে জমিয়ে স্প্রিং রোল বা এক বাটি ভেজিটেবল স্যুপ থেকে বাঁধাকপি বাদ দেবেন। বিশেষ করে যারা থাইরয়েড বা ডায়াবেটিস বা হৃদরোগে আক্রান্ত তাদের ক্ষেত্রে অনেক সময়ই বাঁধাকপি না খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন ডাক্তাররা। বাঁধাকপি গলব্লাডারের পেশেন্টদের ক্ষেত্রেও হজমে যথেষ্ঠ সমস্যা সৃষ্টি করে। কিন্তু এ সত্ত্বেও সবুজ সব্জি বাঁধাকপির কোন গুন নেই এটা বলা কি যায়। না একদমই নয়। বাঁধাকপি স্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে কিছু সু-প্রভাব ফেলে। সম্প্রতি একদল চিকিৎসক বাঁধাকপি সম্পর্কে অন্য তথ্য সামনে নিয়ে এসেছেন, তাদের মতে এসব সবজি পাকস্থলীতে গিয়ে যখন হজম হতে থাকে, সেসময় এগুলো থেকে ক্যান্সার প্রতিরোধী রাসায়নিক পদার্থ নিঃসরিত হয়। ব্রিটেনের একদল গবেষকের মতে বাঁধাকপি মলাশয়ে ক্যন্সার রোধে কার্যকারি ভুমিকা পালন করে। একটি গবেষনার মাধ্যমে দেখা গেছে, অন্ত্রের ভিতর একটি আবরন থাকে, সাধারনত অন্ত্রের ভিতর এই আবরনের ৩-৪ দিন অন্তর পরিবর্তন হয়। অন্ত্রের এই আবরন তৈরী না হলে প্রদাহ সৃষ্টি হয় যা ক্যন্সারের কারণ। বাঁধাকপির মতো কিছু সব্জি এই আবরনটি তৈরী করে অন্ত্রের স্বাস্থ্য রক্ষা করে। তাই বাঁধাকপি খাওয়া নিয়ে যাদের মনে সংশয় আছে তারা এখন থেকে নিঃসঙ্কোচে বাঁধাকপি খেতে পারেন। তবে এটা অবশ্যই মনে রাখবেন অতিমাত্রায় কোন কিছু খাওয়াই স্বাস্থ্যের পক্ষে খারাপ। সেক্ষেত্রে চিকিৎসকের কাছে অবশ্যই পরামর্শ নেওয়া উচিত ।