Date : 2020-12-05

“আমি হতাশ, মর্মাহত ও দুঃখিত”: চন্দা

নয়াদিল্লি: ভিডিয়োকনকে ঋণ মঞ্জুরের ক্ষেত্রে স্বজনপোষণ ও স্বার্থের সংঘাতের অভিযোগ ওঠে আইসিআইসিআই ব্যাঙ্কের প্রাক্তন সিইও চন্দা কোছরের বিরুদ্ধে। এরপরই ছন্দার বিরুদ্ধে প্রাথমিক তদন্ত শুরু করে সিবিআই। ইতিমধ্যেই আইসিআইসিআই ব্যাঙ্কের এমডি-সিইওর পদ থেকে ইস্তফা দেন চন্দা। এবার চন্দার সঙ্গে সমস্ত সম্পর্ক ছিন্ন করে চন্দাকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নিল ব্যাঙ্ক। পাশাপাশি তাঁর অবসরকালীন সমস্ত আর্থিক সুবিধা থেকে স্টক অপশন, স্বাস্থ্য সংক্রান্ত আর্থিক সুবিধা, বকেয়া বোনাস বা ইনক্রিমেন্ট সব কিছু থেকেই চন্দাকে বঞ্চিত করার সিদ্ধান্ত নিল আইসিআইসিআই। শুধুমাত্র যে নানা সুবিধা থেকে বঞ্চিত করা হবে তাই নয়, ২০০৯ সালের এপ্রিল থেকে ২০১৮ সালের মার্চ পর্যন্ত তিনি যত টাকা বোনাস পেয়েছেন সবটাই তাঁকে ফিরিয়ে দিতে হবে ব্যাঙ্ককে। ২০১২ সালে ভিডিয়োকন গোষ্ঠীকে ৩২৫০ কোটির ঋণ মঞ্জুর করেন চন্দা। এরপরই তাঁর বিরুদ্ধে স্বজনপোষনের অভিযোগ ওঠে। সেবি এবং কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই তাঁর বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করে। প্রসঙ্গত, ১৯৮৪ সালে আইসিআইসিআই ব্যাঙ্কে কর্মজীবন শুরু করেন চন্দা। এদিন ব্যাঙ্কের সিদ্ধান্ত শোনার পর চন্দা বলেন, “দীর্ঘ ৩৪ বছর নিষ্ঠা ও পরিশ্রমের সঙ্গে কাজ করেছি। আমি হতাশ, মর্মাহত ও দুঃখিত।”