Date : 2020-10-27

প্রয়াত প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জর্জ ফার্নান্ডেজ

নয়া দিল্লি: প্রয়াত প্রাক্তন কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী জর্জ ফার্নান্ডেজ। মঙ্গলবার সকালে প্রয়াত হন তিনি। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৮৮। দীর্ঘদিন ধরেই বার্ধক্যজনিত নানা সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি। পার্কিনসন ও অ্যালঝাইমার্সেও আক্রান্ত ছিলেন। বেশকিছুদিন আগে সোয়াইন ফ্লুতেও আক্রান্ত হন এই প্রাক্তন মন্ত্রী। এই রাজনৈতিক মহীরুহের মৃত্যুতে শেষ হল আরও এক অধ্যায়ের। ১৯৩০ সালের ৩ জুন ম্যাঙ্গালোরে জন্ম জর্জ ফার্নান্ডেজের। মাত্র ২০ বছরের মধ্যেই একজন শ্রমিক নেতা হিসেবে রাজনীতির প্রাঙ্গনে পায়ের নীচের জমি শক্ত করেন জর্জ। ১৯৬৭ সালে সংসদীয় রাজনীতিতে পা রাখেন তিনি। কংগ্রেসের এসকে পাটিলকে হারিয়ে দক্ষিণ বম্বে লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ হন। অল ইন্ডিয়া রেলওয়ে মেনস ফেডারেশনের সভাপতি থাকাকালীন ১৯৭৪ সালে তাঁর নেতৃত্বেই রেল ধর্মঘট হয়। এরপর ১৯৭৬ সালে বরোদা ডিনামাইট মামলায় গ্রেফতার হন তিনি। জরুরি অবস্থার পর তিনি বিহারের মজফ্ফরপুর থেকে সাংসদ হন। কেন্দ্রীয় শিল্পমন্ত্রী হন। বিনিয়োগ সংক্রান্ত মতবিরোধের জন্য মার্কিন সংস্থা আইবিএম ও কোকা-কোলাকে দেশ থেকে চলে যেতেও বলেছিলেন তিনি। ১৮৮৯ থেকে ১৯৯০ সাল পর্যন্ত রেলমন্ত্রকের দায়িত্বে ছিলেন জর্জ ফার্নান্ডেজ। কোঙ্কন রেলওয়ের পথচলা শুরু হয় তাঁর উদ্যোগেই। ১৯৯৮ সাল থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত প্রতিরক্ষামন্ত্রকের দায়িত্বে ছিলেন তিনি। তাঁর আমলেই পোখরানে পরমাণু পরীক্ষা হয়। জর্জফার্নান্ডেজ সমতা পার্টির প্রতিষ্ঠাতা সদস্য। ২০০৯-২০১০ এক বছরের জন্য তিনি রাজ্যসভার সাংসদ হয়েছিলেন। ১৯৯৬ সাল থেকে দীর্ঘদিন তিনি ছিলেন এনডিএ-র আহ্বায়ক।মন্ত্রিত্বে থাকাকালীন বিতর্কেও জড়িয়ে পড়েছিলেন বেশ কয়েকবার। তার মধ্যে অন্যতম তেহলকা কাণ্ড ও বারাক মিসাইল কাণ্ড । সিবিআই তাঁর বিরুদ্ধে এফআইআর-ও করেছিল। তাঁর শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে বুধবার।