Date : 2020-10-26

পাকিস্তানে হিন্দু তীর্থ পঞ্জ তীরথকে হেরিটেজ ঘোষণা

ওয়েব ডেস্কঃ কাশ্মীর প্রসঙ্গে বরাবরই যুযুধান ভারত-পাক সম্পর্ক। সন্ত্রাসবাদী দমনে অপরেশন সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের পর থেকেই দুই দেশের মধ্যে দফায় দফায় অশান্তির জেরে উত্তপ্ত হয়েছে জম্মু-কাশ্মীরের সীমান্তবর্তী এলাকা। দু-দেশের বৈদেশিক সম্পর্কের বরফ গলার লক্ষণই নেই অথচ অবাক করে দেওয়ার মতো ঘটনার নজির দেখল গোটা বিশ্ব। পাকিস্তানের পেশোয়ারে অবস্থিত হিন্দু তীর্থ পঞ্জ তীরথকে হেরিটেজ ঘোষণা করল পাক সরকার। স্থানীয় পাখতুনখোয়ার প্রশাসন ওই হিন্দু তীর্থকে বিশেষ মর্যাদা প্রদান করেছে। পাঁচটি জলাশয় বেষ্টিত বলে হিন্দু তীর্থটির নাম হয়েছে পঞ্জ তীরথ। বর্তমানে ওই পাঁচটি জলাশয়কে রক্ষণাবেক্ষণ করে চাচা ইউনুস পার্ক ও পাখতুনখয়া চেম্বার অফ কমাসফ অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি নামে একটি সংস্থা। পাঁচটি জলাশয়ের কেন্দ্রে রয়েছে সুপ্রাচীন একটি তাল গাছ বা পাম ট্রী এছাড়া রযেছে একটি মন্দির। এই মন্দির ঘিরে মিথ প্রচলিত আছে যে মহাভারতের অন্যতম বিশেষ চরিত্র পান্ডু এই অঞ্চলেই বসবাস করতেন। পাকিস্তানের হিন্দুরা এই পাঁচটি জলাশয়কে অতি পবিত্র মনে করে প্রতি কার্ত্তিক মাসে পুণ্য লাভে স্নান করে থাকেন। সুপ্রাচীন তাল গাছের নিচে পুজো দেন তারা। ইতিহাসে কথিত আছে আফগান রাজত্বকালে ওই অংশের কিছুটা ক্ষতি হয়। তবে স্থানীয় হিন্দুরা আবার সংস্কার করে ফের পুজা অর্চনা শুরু করে। পরবর্তীকালে ঘোষণা করা হয় ওই স্থানে কেউ কোন রকম ক্ষতি করলে ২০ লক্ষটাকা জরিমানা সহ পাঁচবছরের কারাদন্ড দেওয়া হবে। এখন এই হিন্দু তীর্থে অসংখ্য ভক্ত সমাগম হয়।