Date : 2020-10-30

কেমন হল ভিকি কৌশলের সার্জিক্যাল স্ট্রাইক?

ওয়েব ডেস্ক: দিনটি ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬। কাশ্মীরের উরিতে ভারতীয় সেনা ছাউনিতে পাকিস্তান আশ্রিত জঙ্গিদের নাশকতার ঘটনা কার্যত আঘাত করেছিল দেশের গরিমাকে। সেই সময় ভারতীয় সেনা জওয়ানদের পরিবারের শোকে সামিল হয়েছিল গোটা দেশ। পাকিস্তানের কাপুরুষোচিত হামলায় গর্জে উঠেছিল কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারী। তবে সেই ঘটনার জবাব দিয়েছিল ভারত। যে জবাবের নাম ‘সার্জিক্যাল স্ট্রাইক’। শব্দটা যতটা আকর্ষণীয় ঠিক ততটাই রোমাঞ্চকর ঘটনার ভিডিও ফুটেজগুলো। আচমকা ঘোষণা হল সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের। ভারতীয় ফৌজবাহিনীর অগ্নিপরীক্ষা। পাকিস্তানে প্রবেশ করে সার্জিক্যাল স্ট্রাইক চালিয়েছিল ভারত৷ দুটি পাক ঘাঁটি ধ্বংস করে নিজেদের অক্ষত রেখে ফিরে আসে ভারত সন্তানরা। ২০১৬-য় ভারতীয় ফৌজের সার্জিক্যাল স্ট্রাইক আশ্রিত ছবিতে যা দেখা গেল তা মানুষের পক্ষে যতটা সম্ভব তার চেয়েও অনেকটা বেশি। একেবারে সহজ-সরল ছকে বাঁধা কাহিনি। বিহান শেরগিলের চরিত্রে ভিকি কৌশল, ভারতীয় সেনার একজন দাপুটে এবং দক্ষ মেজর। ভারতীয় সেনার স্ট্র্যাটেজিক অপরেশনের অন্যতম স্তম্ভ বিহান। মণিপুর সীমান্তে জঙ্গিদের একটি বড় দলকে ধ্বংস করার পর তাঁর মনে হয় জীবন সংগ্রাম এখনও বাকি। মায়ের কঠিন অসুস্থতার জন্য সীমান্ত ছেড়ে রাজধানীতে বদলি নিয়ে ফিরে আসেন বিহান। আর তখনই কাশ্মীরে পাকজঙ্গিদের হানায় বেশ কয়েকজন সেনার মৃত্যু হয়। এরপর গল্প মোড় নিতে থাকে চাঞ্চল্যকর দিকে। শুরু হয় আবেগ আর লড়াইয়ের অসামান্য টানাপোড়েন। ভারতের পক্ষ থেকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের। সেই দলে যোগ নেয় বিহান। বিহান শুধু অংশ নেয় তাই নয়, সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের নেতৃত্বেও তিনিই থাকেন। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীকে আশ্বাস দেয়, জঙ্গি খতম করে রেসকোর্স রোডে সকলকে নিয়ে ডিনার সারবেন তিনি। ছবির দ্বিতীয় ভাগে পুরোটাই নিয়ন্ত্রণ রেখা পেরিয়ে জঙ্গি খতম অভিযান। উরিকে ঘিরে দানা বেঁধেছে কয়েকজন মানুষের চাওয়া-পাওয়া, আবেগ, লড়াইয়ের কাহিনি। ছবি জুড়ে ভিকি কৌশল বারবার প্রমাণ করেছেন তাঁর দক্ষতা। সংলাপ বলার ধরন থেকে চেহারায় পরিবর্তন আনা, উরি ছবি নিয়ে এক চুল জমিও ছাড়েননি ভিকি। পরেশ রাওয়াল জাতীয় উপদেষ্টা অজিত ডোভালের চরিত্রে কার্যত মন জয় করে নিয়েছেন।

অভিনেতা: পরেশ রাওয়াল, রজিত কাপুর, ভিকি কৌশল, ইয়ামি গৌতম, কীর্তি কুলহারি
পরিচালক: আদিত্য ধর Score Card: 7/10