Date : 2020-12-05

কুকুরের কান্নায় লুকিয়ে কোন রহস্য!

ওয়েব ডেস্ক: হাঁচি দিলে ঘর থেকে কোন কাজে বেড়তে নেই বা কুকুরের কাঁদলে মৃত্যু নেমে আসে, এসব অনেক সংস্কারের কথা শুনেছেন নিশ্চই মা ঠাকুমাদের কাছ থেকে। অনেকে এই সংস্কারকে নিছক অন্ধ বিশ্বাস বলে উড়িয়ে দেন। আর যারা প্রত্যহ কর্মব্যস্ত জীবনের মধ্যে দিয়ে চলেন তাদের পক্ষে এত সংস্কার মেনে চলা সম্ভব নয়। তাদের মধ্যে অনেকে হয়তো ভাবেন কুকুর কাঁদছে মানে কোন বড় প্রাকৃতিক বিপর্যয় আসতে চলেছে, পশু-পাখি যার পূর্বাভাস আগে থেকে পায়। তবে রাতে ঘুমের ঘোরে আপনার ঘরের সামনে কুকুর হঠাৎ কেঁদে উঠলে ভয় পেয়ে হয়তো অনেকেই কুকুরকে তারিয়ে দেন, কিন্তু কুকুর কাঁদার আসল কারণ কি আপনি সঠিক ভাবে জানেন- এসব সংস্কারের কথা দুরে সরিয়ে রেখে যারা প্রকৃত বৈজ্ঞানিক কারণ অনুসন্ধান করছেন তাদের বলি, কুকুরের কান্নার কোন ভৌতিক বিষয় নয়। এটা সম্পূর্ণ কুকুর কখনও একা থাকতে পারে না। তাই সঙ্গিদের না দেখলেই কুকুর কান্নার আওয়াজ করে বাকি সঙ্গিদের ডাকে। কুকুর আসলে কাঁদে না, ওরা আসলে নিজেদের উপস্থিতিটা ওই ভাবে জানায়। পশু চিকিৎসকরা বলেন কুকুরের শরীরে আঘাত লাগলে বা তারা ব্যথা যন্ত্রণা অনুভব করলে এই ধরনের শব্দ করে তা জানান দেয়। কুকুরের কান্না বলে আমরা আসলে যা বুঝি সেটা কান্না নয় বলাটাও ভুল, মনের দুঃখ প্রকাশ তো সব জীবজন্তুই কান্নার মাধ্যমে প্রকাশ করে থাকে। তবে এই কান্না অশুভ কিনা তা নিয়ে যে ধারনা রয়েছে তা নিছকই মানুষের কুসংস্কার।