Date : 2019-04-22

Breaking
প্রয়াত বিশিষ্ট লোকসঙ্গীত শিল্পী অমর পাল। এসএসকেএম হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ। সঙ্গীত মহলে শোকের ছায়া।
তৃতীয় দফার রাজ্যে আরও ৫০ কোম্পানি বাড়িয়ে ৩২৪ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী। সিদ্ধান্ত কমিশনের। ১০০ শতাংশ বুথেই মোতায়েন থাকবে সশস্ত্র বাহিনী।
তৃতীয় দফার তিন দিন আগেই মালদার এসপি অর্নব ঘোষকে সরিয়ে দিল নির্বাচন কমিশন। নতুন এসপি হলেন অজয় প্রসাদ।
নরেন্দ্র মোদীকে নিয়ে ওয়েব সিরিজ-অ্যা কমন ম্যানের ওপর নিষেধজ্ঞা জারি করল নির্বাচন কমিশন। অনলাইনে থাকা ৫ টি এপিসোডই সরিয়ে ফেলার নির্দেশ কমিশনের।
সাহস থাকা ভালো, দুঃসাহস ভালো নয়। হারাতঙ্ক রোগে ভুগছেন মোদী। নদিয়ায় বললেন মমতা।
কৃষ্ণনগরে মহুয়া মৈত্র। রানাঘাটে রুপালী বিশ্বাস। দলীয় প্রার্থীর সমর্থনে জনসভা করলেন তৃণমূল সুপ্রিমো। কৃষ্ণনগরে রোড শো করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
মধ্যরাতে কানপুরের কাছে লাইনচ্যুত হাওড়া-দিল্লিগামী পূর্বা এক্সপ্রেস। ট্রেনের ১২টি কামরা লাইনচ্যুত। আহত ১৪ জন, হতাহতের খবর নেই।
৩ দিন ধরে আমার স্বামী নিখোঁজ। স্বামীর মা-বাবা খুব চিন্তিত। ওকে ফিরিয়ে দিন। আমার সাথে সম্পর্কে কোনও চিঁর নেই। পুলিশ প্রশাসন তদন্ত করুক। বললেন নিখোঁজ নোডাল অফিসার অর্ণব রায়ের স্ত্রী।
কোচবিহারের ৩৫০টি বুথে পুনর্নির্বাচনের সম্ভাবনা। বিজেপির দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে স্ক্রুটিনির রিপোর্ট দেখবেন বিশেষ পর্যবেক্ষক। তারপরই নেওয়া হতে পারে পুনর্নির্বাচনের সিদ্ধান্ত।
বাংলায় বিজেপির সমর্থনে দিদির ঘুমে ব্রেক পড়েছে। রাজ্যে দুর্নীতির শাসন চলছে। ভোটের ফলই সবকিছুর জবাব দেবে। বাংলায় বড় কিছু ঘটবে। বুনিয়াদপুরের সভা থেকে মমতাকে আক্রমণ মোদীর।
চতুর্থ দফায় কৃষ্ণনগর ও রানাঘাটে ভোটের আগে আজ নদিয়ায় তৃণমূল সুপ্রিমো। রানাঘাট লোকসভার বগুলায় ও কৃষ্ণনগরে আজ দুপুরে জনসভা করবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
তৃতীয় দফায় ৩২৪ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী নিয়োগের সিদ্ধান্ত নিল নির্বাচন কমিশন। ৯০ শতাংশ বুথেই থাকবে কেন্দ্রীয় বাহিনী। জানালেন বিশেষ নির্বাচনী পর্যবেক্ষক অজয় নায়েক।
এই নির্বাচন ভারত গড়ার নির্বাচন। মোদী খমতায় এলে মানুষের অধিকার খর্ব করবেন। বালুরঘাটের নির্বাচনী সভা থেকে বিজেপিকে নিশানা তৃণমূলের।
বহরমপুরের খাস তালুকে অধীর চৌধুরিকে উৎখাতে ডাক মমতার। কংগ্রেস আরএসএস আঁতাতের তত্ব তুললেন।

ভোটব্যাঙ্ক ধরে রাখতে মোদীর ভরসা সেই গ্রামাঞ্চল

নয়া দিল্লি: লোকসভা ভোটের আগে এই দফার শেষ বাজেট অধিবেশনে গদি ধরে রাখতে কল্পতরু মোদী সরকার। এদিন অর্থমন্ত্রকের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী পীযূষ গোয়েল সংসদে অন্তর্বর্তীকালীন বাজেট পেশ করেন। লোকসভা ভোটকে মাথায় রেখে ভোটারদের মন জয় করতে চেষ্টায় কোনো খামতি রাখল না মোদী সরকার। এদিন মোদি সরকারের বিগত পাঁচ বছরের উন্নয়ন ও কাজের খতিয়ান তুলে ধরেন পীযূষ গোয়েল। তিনি জানান, প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় দেশে ১.৫৩ কোটি বাড়ি নির্মান সম্ভব হয়েছে ২০১৪-১৮ সালের মধ্যে ৷ আগের তুলনায় তিনগুণ বেশি সড়ক নির্মান সম্ভব হয়েছে গ্রামাঞ্চলে ৷ বিগত ৫ বছরে উন্নয়নের যে জোয়ার এসেছে তা তুলে ধরেন পীযূষ গোয়েল। তিনি আরও বলেন, মূল্যবৃদ্ধির হারও অনেকটাই কমেছে ৷ ইতিমধ্যেই গরীব মানুষদের মুখে অন্ন তুলে দেওয়ার জন্য ১ লক্ষ ৭০ হাজার কোটি টাকা ব্যয় করেছে কেন্দ্র ৷ ২০১৯ অন্তর্বর্তীকালীন বাজেটে গ্রামীণ সড়ক যোজনায় বরাদ্দ করা হয়েছে ১৯ হাজার কোটি টাকা। আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের এর আওতায় দেশের ৫০ কোটি মানুষ বিনামূল্যে চিকিৎসার সুবিধা পাবেন৷ ফলে দরিদ্র মানুষের প্রায় তিন হাজার কোটি টাকা সঞ্চয় হবে৷ এর পাশাপাশি তিনি বলেন,অসংগঠিত শ্রমিকদের ক্ষেত্রে ১৫ হাজার টাকার কম বেতনে মিলবে মাসে ৩০০০ টাকা পেনশন। ১ কোটি যুবককে জীবিকা অর্জনের জন্য কারিগরি প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। উজ্জ্বলা যোজনায় আগামী বছরে ৮ কোটি বাড়িতে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হবে। যাযাবরদের জন্য তৈরী হবে ওয়েলফেয়ার ডেভলপমেন্ট বোর্ড। এর পাশাপাশি ২০৩০-র মধ্যে সব ভারতীয়র জন্য পরিস্রুত পানীয় জল,স্বচ্ছ নদী। এমনকি প্রত্যেক ভারতীয়র কাছে পৌঁছবে ডিজিটাল ইন্ডিয়া। এবং উল্লেখ্য ২০৩০-র মধ্যে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে গ্রামীণ শিল্পায়ন। এদিন দেশের করদাতাদেরও বিশেষ ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন ভারপ্রাপ্ত অর্থমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল। তাঁদের করের টাকায়, গরিবদের শৌচাগার, রান্নার গ্যাস, স্বাস্থ্য পরিষেবা দেওয়া সম্ভব হয়েছে। গ্রাম ও শহরের অর্থনৈতিক বিভেদ ঘুচিয়ে দেওয়ার জন্যই এই উদ্যোগ, এমনটাই বলেন পীযূষ গোয়েল।