Date : 2020-12-05

ফিরে এসো অভিনন্দন…

ওয়েব ডেস্ক: মঙ্গলবার এয়ার স্ট্রাইকের পর বুধবার পাল্টা আক্রমন হানে পাকিস্তান। কাশ্মীরের নৌশেরা সেক্টরে কয়েকটি যুদ্ধবিমান ঢোকার চেষ্টা করে। পাকিস্তানের এফ-১৬ যুদ্ধবিমানকে গুলি করে নৌশেরা সেক্টরে নামিয়ে দেয় ভারত। পাশাপাশি এদিন ভারতের যুদ্ধবিমান মিগ ২১ জম্মু-কাশ্মীরের বদগামে ভেঙে পড়ে। এর পর থেকেই পাকিস্তানের তরফে দাবি করা হয় ভারতের দু’টি বিমান গুলি করে নামিয়েছে তারা এবং দুই চালক তাদের হাতে ধরা পড়েছেন। তাঁদের মধ্যে একজন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। অন্য জন সুস্থ রয়েছেন। কিছুক্ষণ পরেই বিবৃতি পাল্টে পাকিস্তান জানায় দুজন নয় একজনকে কব্জায় নিয়েছে তারা। এদিকে সাংবাদিক বৈঠকে বিদেশমন্ত্রকের তরফেও জানানো হয় ভারতীয় বায়ুসেনার একজন পাইলট নিখোঁজ হয়েছেন। এরপরই উৎকন্ঠার প্রহর গোনা শুরু হয় পাইলট অভিনন্দন বর্তমানকে নিয়ে। এদিকে রক্তাক্ত অভিনন্দনের বিভিন্ন ছবি ও ভিডিও সংবাদমাধ্যম ও সোশ্যাল মিডিয়ায় ফাঁস করে পাক সেনা।

দেশজুড়ে সমালোচনায় সরব হন সাধারণ মানুষ। অন্যদিকে প্রার্থনা একটাই সুস্থ শরীরে দেশে ফিরুন ভেঙে পড়া মিগ ২১ বাইসন যুদ্ধবিমানের চালক অভিনন্দন বর্তমান। সাউথ ব্লকের তরফে পাক হেফাজতে থাকা অভিনন্দনের দ্রুত ও নিরাপদ মুক্তির জন্য ব্যবস্থার কথাও জানানো হয়। একইসঙ্গে জেনেভা চুক্তির কথা স্মরণ করিয়ে পাক সেনাকে অভিনন্দনের প্রতি আচরণ করা নিয়েও সতর্ক করা হয়েছে। পাকিস্তানের প্রকাশ করা ভিডিওয় রক্তাক্ত অবস্থায় অভিনন্দনকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে দেখা যায়। পাক সেনার প্রশ্নের উত্তরে তাঁকে নিজের নাম ও সার্ভিস নম্বর বলতেও শোনা যায়। অন্য একটি ভিডিওয় অভিনন্দনকে চা খেতে দেখা গিয়েছে। চা খেতে খেতে চায়ের প্রশংসার পাশাপাশি পাকিস্তানের আতিথেয়তায় যে তিনি মুগ্ধ সেকথাও বলতে শোনা যায়, কিন্তু পাক সেনার অন্য একটি প্রশ্নে নির্লিপ্ত ভঙ্গিতে তাঁকে বলতে শোনা গিয়েছে, ‘আই অ্যাম নট সাপোজ টু টেল ইউ স্যার’। এই কঠিন মুহূর্তেও অভিনন্দনের ধৈর্য্য, সাহস ও অতীন্দ্র মনোভাবকে কুর্ণিশ জানিয়েছে গোটা দেশ। ইতিমধ্যেই অভিনন্দনকে দেশে ফেরানোর তোড়জোড় শুরু হয়েছে। সবুজ সংকেত মিলেছে পাকিস্তানের তরফেও।