Date : 2019-08-26

ফের বরার্ট ভঢ়রাকে তলব করল ইডি

নয়া দিল্লি : ফের বরার্ট ভঢ়রাকে আর্থিক দুর্নীতি মামলায় তলব করল ইডি। আর্থিক দুর্নীতি মামলায় ধারাবাহিকভাবে তাঁকে জেরা করছে ইডি। জামনগরে ইডির অফিসে এর আগে ৬ ও ৭ ফেব্রুয়ারি  জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছিল বঢ়রাকে । বুধবার সাড়ে ৫ ঘণ্টার বেশি সময় ধরে ম্যারাথন জেরা করা হয় বরার্ট ভঢ়রাকে। ৪০টি লিখিত প্রশ্ন করে উত্তর দিতে বলা হয় তাঁকে ।  বুধবার আনুষ্ঠানিকভাবে কংগ্রেসের দায়িত্ব গ্রহণের দিন খোদ প্রিয়ঙ্কা গান্ধি ইডি অফিসে ভঢ়রাকে ছেড়ে দিয়ে যান। বরার্ট ভঢ়রার বিরুদ্ধে মূল অভিযোগ, বঢরা লন্ডনে একাধিক স্থাবর সম্পত্তি কিনেছেন বেআইনি আর্থিক লেনদেনের মাধ্যমে। অভিযোগের কেন্দ্রে রয়েছে তাঁর বেনামে কেনা উনিশ লক্ষ পাউন্ড মূল্যের লন্ডনের ব্রানস্টন স্কোয়ারের একটি বাড়ি। এছাড়াও লন্ডনে তাঁর আরও বেনামি সম্পত্তি আছে। বিদেশে সম্পত্তি কেনাবেচা, আর্থিক লেনদেন সংক্রান্ত বিষয়েও প্রশ্ন করা হয় বঢরাকে। এর পাশাপাশি অস্ত্র ব্যবসায়ী সঞ্জয় ভান্ডারীর সঙ্গে বঢরার আর্থিক লেনদেনের বিষয়টিও গোয়েন্দাদের নজরে রয়েছে। এর আগে ভঢ়রার আইনজীবী সুমন জ্যোতি খৈতান সংবাদমাধ্যমে একটি বিবৃতি দিয়ে বলেন, একজন নির্দোষকে রাজনৈতিক স্বার্থের জন্য হেনস্থা করা হচ্ছে । রবার্ট ভঢ়রা নির্দোষ ও তিনি কোনও ভুল করেননি । প্রসঙ্গত, গত ডিসেম্বরেই ভঢ়রার সহযোগী মনোজ আরোরাকে জেরা করে ইডি। এদিকে কংগ্রেসের সদ্য নিযুক্ত সাধারণ সম্পাদকের বক্তব্য, রবার্ট বঢরা তাঁর স্বামী, তাঁর পরিবার। তিনি তাঁর পরিবারের পাশেই আছে। এদিন তিনি আরও বলেন তাঁর কোনও আপত্তি নেই  রবার্ট বা কার্তি চিদম্বরমকে জেরা করা নিয়ে কিন্তু সেক্ষেত্রে রাফাল চুক্তিরও সঠিক তদন্ত হওয়া আবশ্যিক । পাশাপাশি কংগ্রেসের অভিযোগ, প্রিয়ঙ্কার রাজনীতিতে নামার খবর আসার পর, বেড়েছে ইডির তদন্তের গতি। সবমিলিয়ে বারবার বরার্ট ভঢ়রাকে ইডির তলবের নেপথ্যে রাজনৈতিক প্রতিহিংসাই দেখছে কংগ্রেস।