Date : 2020-12-03

উদ্বোধনের অপেক্ষায় হাসনাবাদ সেতু

সুন্দরবন: ১২ বছর পর সুন্দরবনের মানুষের স্বপ্নপূরণ হতে চলেছে। বৃহস্পতিবার উদ্বোধন হতে চলেছে সুন্দরবনের প্রবেশদ্বার হাসনাবাদে বনবিবি সেতু। সেতুর উদ্বোধন করবেন খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। এই সেতুর ফলে হাসনাবাদের কাটাখালি ও পারহাসনাবাদ অঞ্চল জুড়বে। শুধু স্থানীয়রাই নন উপকৃত হবেন সুন্দর বনে বেড়াতে আসা পর্যটকরাও। ২০০৬ সালে বাম জমানায় তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য ২৫ কোটি টাকা ব্যয়ে কাটাখালি নদীর উপর হাসনাবাদ সেতুর শিলান্যাস করেন। কিন্তু ৬ বছরের মাথায় দেখা যায় নির্মীয়মান সেতুর পিলারে কিছু ত্রুটি রয়েছে। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শে সেতুর দুই পাশে দুটি পিলার ভেঙে নতুন করে তিনটি পিলার তৈরির সিদ্ধান্ত নেয় রাজ্য সরকার। সেতুর জন্য বাড়তি একশো কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়। ইতিমধ্যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সেতুর নাম দিয়েছেন বনবিবি সেতু । সেতু চালু হয়ে গেলে সুন্দরবনের প্রত্যন্ত গ্রামের হাজার হাজার মানুষের যাতায়াতের কষ্ট অনেকটাই লাঘব হবে। ব্যবসা বানিজ্যের ক্ষেত্রেও সুবিধা হবে সুন্দরবনের মানুষের। কলকাতা থেকে সুন্দরবন পর্যন্ত বেড়াতে আসা পর্যটকদেরও সুবিধা হবে। নেবুখালি থেকে ভেসেলে নদী পার করে সরাসরি পৌঁছে যাওয়া যাবে সুন্দরবনে। হিঙ্গলগঞ্জ এর সঙ্গে বসিরহাট ও কলকাতার সরাসরি যোগাযোগ তৈরি হবে । সব মিলিয়ে এই সেতু সুন্দরবনের অর্থনৈতিতে কার্যকরী ভূমিকা নেবে বলে আশা করা যায়।