Date : 2020-12-03

হ্যামিলটনে সিরিজ হারল ভারত

ওয়েব ডেস্ক: রুদ্ধশ্বাস ম্যাচের শেষে টানটান উত্তেজনায় হতাশা দিয়ে শেষ হল ম্যাচ। দু ওভারে ৩০ রান খুব কঠিন ব্যবধান ছিল না টিম ইন্ডিয়ার কাছে, একের পর এক উইকেট হারিয়ে মুখ চুন করে ড্রেসিং রুমে ফিরল রোহিতরা। এদিনের ম্যাচের মিডিল অর্ডারে উইকেট হারানোর হিড়িক পরে যায় টিম ইন্ডিয়ার। শেষে ছয় হাঁকিয়েও ছন্দ ফেরাতে ব্যর্থ হয় দীনেশ। মাত্র ৪ রানের ব্যবধানে কিউয়িদের উল্লাসে ফেটে পরে স্টেডিয়াম। ৬ উইকেট হারিয়ে ২০৮ রানে এসে থমকে যায় রোহিতদের ব্যাটিং। শেষ চার ওভারে বাঘের মতো ঝাঁপিয়ে পড়েও দীনেশ-ক্রুণালের গর্জনই সার হয়। কিউয়িরা নিয়ন্ত্রণে রাখে বোলিং। সেডেন পার্কের ম্যাচ শেষ পর্যন্ত হাতের মুঠোয় চলে আসে কিউয়িদের।২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নেয় নিউজিল্যান্ড। ২১৩ রানের লক্ষ্য নিয়ে নেমে শুরুতেই উইকেট উড়ে যায় ধাওয়ানের। এরপর বিজয় শঙ্করের ব্যটে আশায় বুক বাঁধতে থাকে স্টেডিয়ামের ভারতীয় সমর্থকরা। ২৮ বলে ৪৩ রানেই যদিও বা দম ফুরিয়ে যায় তার। এরপরেই রোহিত, পন্ত ও পান্ডিয়া, এক এক করে টিম ইন্ডিয়ার ড্রেসিংরুমে ফিরে যাওয়ার লাইন পড়ে যায়। লম্বা ছয় হাঁকাতে গিয়ে সাউদির হাতে উইকেট জমা দিয়ে ফিরে যান ধোনি। মাত্র চার রানের মধ্যে তিন উইকেট হারিয়ে দিশাহারা হয়ে যায় টিম ইন্ডিয়া। শেষ পর্যন্ত চেষ্টা করেও ব্যাক ফুটে যেতে হয় ভারতকে। এদিন বিজয় শঙ্কর (৪৩), ঋষভ পন্থ (২৮), হার্দিক পাণ্ডিয়া(২১) আর শেষ দিকে দীনেশ কার্তিক (৩৩) রানে অপরাজিত থাকে। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজের তৃতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচ ছিল ধোনির ক্রিকেট কেরিয়ারের ৩০০তম টি-টোয়েন্টি ম্যাচ৷ প্রথম ভারতীয় ক্রিকেটার হিসাবে সবরকম টি-টোয়েন্টি সিরিজ মিলিয়ে তিনিই প্রথম ৩০০ টি ম্যাচ খেলে রেকর্ড গড়লেন।