Date : 2019-08-26

৩৫ বছরের পুরোনো ভৃত্যকে এভাবেই বিদায় জানাল সৌদির এক পরিবার

ওয়েব ডেস্ক: চাকরি থেকে অবসর নেওয়ার পর দীর্ঘদিনের এক বিশ্বস্ত কর্মীকে ঠিক যেমন ভাবে বিদায় জানায় তার সংস্থা ঠিক তেমন ভাবেই বাড়ির ভৃত্যকে বিদায় জানাল সৌদির এক পরিবার। প্রায় ৩৫ বছর ধরে সৌদি আরবের ওই পরিবারের জন্য কাজ করছিলেন ভারতের মিডো শিরীয়ান। খেতমজুরের কাজের পাশাপাশি বাড়ির অতিথিদের খাবার পরিবেশনের কাজটিও করতেন মিডো। সঙ্গে সৌদির হেইল শহরে ওই পরিবারেরই একটি গেস্ট হাউস রয়েছে সেটিও দেখাশুনো করতেন মিডো। হেইল আর অল-জউফ শহরের পাহাড়ি এলাকা ঘুরতে গিয়ে এই গেস্ট হাউসেই উঠতেন পর্যটকেরা। সেখানেও পর্যটকদের দেখভাল করতেন মিডো। কিন্তু মিডোর মন এই কাজে সায় দিলেও শরীর আর সঙ্গ দিচ্ছিল না। কিছু দিন ধরেই ভুগছিলেন নানান শরীরিক সমস্যায়। তাই এবার তাঁকে ছুটি দেওয়া উচিত বলেই মনে করেন অল শেমরি পরিবারের কর্তা আওয়াদ অল শেমরি। আটের দশকে কাজের খোঁজে সৌদি পাড়ি দিয়েছিলেন মিডো শিরীয়ান। আর তার পরই একদিন হুট করেই ওই পরিবারের নজরে পড়ে যান মিডো। মোটা মাইনের কাজও পেয়ে যান ওই পরিবারেরই দেখভাল করার। সেই থেকেই তাদের সঙ্গে থেকে গিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু এবার বিদায় নেওয়ার পালা। আর তাঁকেই জাঁকজমক করে বিদায় জানাল সৌদির ওই পরিবার। এদিন মিডোকে কোলাকুলি করার জন্য রীতিমতো লাইন পড়ে যায়।বিদায় জানানোর মুহূর্তে মোটা অঙ্কের টাকার তাঁর হাতে তুলে দেন পরিবারের কর্তা আওয়াদ অল শেমরি। তাঁর জীবদ্দশায় পেনশেন দেওয়ার প্রতিশ্রুতিও দিয়েছেন তিনি। আওয়াদের জানিয়েছেন,মিডোর সততা, ঔদার্য এবং আনুগত্যে তাঁরা মুগ্ধ।