Date : 2020-10-24

গুলিবিদ্ধ দুই তৃণমূল নেতা

ওয়েব ডেস্ক: ফের রাজ্যে গুলিবিদ্ধ দুই তৃণমূল নেতা। প্রথম ঘটনাটি ঘটেছে মুর্শিদাবাদে। বাড়ি থেকে নদীর ঘাটে যাওয়ার পথে সোমবার নাজিমুল হক নামে ওই তৃণমূল নেতাকে গুলি করে দুষ্কৃতীরা। স্কুটারে করে ঘাটের দিকে যাওয়ার পথে কিছুটা দূর থেকে নাজিমূলকে তাক করে বেশ কয়েকবার গুলি চালায় দুষ্কৃতীরা। রক্তাক্ত অবস্থায় স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। এর আগে রবিবার রাতে ক্যানিং-এ খুন হন দাড়িয়া পঞ্চায়েত প্রধান স্বপ্না নস্করের স্বামী কার্তিক নস্কর। অভিযোগ, পঞ্চায়েত প্রধানের স্বামী ট্যাংরাখালি থেকে বাইকে করে বাড়ি ফিরের সময় দুষ্কৃতিরা তার বাইক থামিয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপ মারে। মৃত্যু নিশ্চিত করতে তাকে গুলিও করে তারা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় কার্তিক নস্করকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেল তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। স্থানীয়দের দাবি, কার্তিক নস্করের বাইকে আরোও একজন ছিলেন যদিও ঘটনার পর থেকে তার আর কোন হদিশ মেলেনি। দুটি খুনের ক্ষেত্রেই স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব দায়ী করেছে বিজেপিকে। তবে আড়ালে আবডালে উঠে আসছে গোষ্ঠি কোন্দোলের কথাও। উল্লেখ্য, এদিনই কুলতলিতে ভর সন্ধ্যায় দুষ্কৃতীদের গুলিতে নিহত হন সুরত আলি মণ্ডল নামে এক তৃণমূল কর্মী। রবিবার সন্ধ্যায় ঘটনাটি ঘটেছে কুলতলির জ্বালাবেড়িয়া ২ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের পয়তার হাট এলাকায়। ক্যানিং ব্লক সভাপতি অর্ণব রায় বলেন, “বিজেপির যেসব দুষ্কৃতী রয়েছে তারা শুধু ক্যানিং নয় গোটা রাজ্যেই এভাবে সন্ত্রাস ছড়াচ্ছে। তৃণমূল কর্মীদের ভয় পাইয়ে দেওয়ার জন্য এই কাজ করা হয়েছে। আগামী দিনে এই ধরনের ঘটনা আরও বাড়বে। প্রশাসনের কাছে দাবি করছি, এই ঘটনার তদন্ত করে প্রকৃত দোষীদের সাজার ব্যবস্থা করা হোক”। তবে দুটি ক্ষেত্রেই এখনো পর্যন্ত দুষ্কৃতিদের চিহ্নিত করতে পারেনি পুলিশ।