Date : 2020-11-01

“স্পর্শকাতর বুথ” ইস্যুতে বিজেপিকে একহাত নিল পার্থ

ওয়েব ডেস্ক: রাজ্যের সমস্ত বুথকে স্পর্শকাতর ঘোষণা করার দাবিতে নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হয়েছে বিজেপি। এই দাবির বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বিজেপির উপর চাপ বাড়াতে বৃহস্পতিবার রাণি রাসমণি রোডে প্রতিবাদে সামিল হয় তৃণমূল কংগ্রেসের মহিলা সেল।

নির্বাচনের প্রথম দফা থেকেই রাজ্যে অবাধ ও সুষ্ঠ নির্বাচন প্রক্রিয়া গড়ে তোলার ব্যাপারে বদ্ধপরিকর নির্বাচন কমিশন। রাজ্যের প্রশাসনিক আধিকারিকদের সঙ্গে এই প্রসঙ্গে একাধিকবার বৈঠকও করেছে কমিশন। পরিস্থিতি সরেজমিনে খতিয়ে দেখতে রাজ্যে আসছেন মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক।

এদিন সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্ব বাংলা এগিয়ে গেছে। বাংলায় উন্নয়ন সব জায়গায় চোখে পড়ার মতো।”

নির্বাচনের আগে ভাটপাড়ার বিধায়ক অর্জুন সিং-এর দলত্যাগের বিষয়ে তোপ দেগে তৃণমূলের মহাসচিব বলেন, “মমতা বন্দ্যাপাধ্যায়ের ছবি ব্যবহার করে যারা নেতা হলেন, তারাই ছুরি মারলেন পিছন থেকে। এদের বিরুদ্ধে জনবিক্ষোভ শুরু হয়েছে।” তিনি আরও বলেন, “বিজেপি, কংগ্রেস থেকে অনেকেই তৃণমূলে যোগ দিতে চলেছেন। এর ফলে লড়াই আরও মজবুত হবে।”

নাম না করে বিজেপি নেতা মুকুল রায়কে কটাক্ষ করেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন, “কাঁচরাপাড়ার লাইট পোস্টের নিচে বসে একজন প্রার্থী গান করতেন মমতা ছাড়া কেউ নেই।” পার্থ চট্টোপাধ্যায় এদিন বিজেপির বিরুদ্ধে সুর চড়িযে বলেন, “জাতীয় সংগ্রামে কোন ইতিহাস নেই বিজেপির, জনবিরোধী নীতি নিয়ে কাজ করেছে বিজেপি। মানুষ তাদের ভরসা করবে না।

মুখ্যমন্ত্রীর প্রতি বিশ্বাস রয়েছে যাদের তারা কখনোই বিজেপিতে যাবে না, সে বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী মত দিলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। পাশাপাশি সদ্য দলত্যাগী বিধায়ক অর্জুন সিং-কে ৬ বছরের জন্য তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে সাসপেন্ড করার কথা জানান পার্থ চট্টপাধ্যায়।