Date : 2019-04-22

Breaking
প্রয়াত বিশিষ্ট লোকসঙ্গীত শিল্পী অমর পাল। এসএসকেএম হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ। সঙ্গীত মহলে শোকের ছায়া।
তৃতীয় দফার রাজ্যে আরও ৫০ কোম্পানি বাড়িয়ে ৩২৪ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী। সিদ্ধান্ত কমিশনের। ১০০ শতাংশ বুথেই মোতায়েন থাকবে সশস্ত্র বাহিনী।
তৃতীয় দফার তিন দিন আগেই মালদার এসপি অর্নব ঘোষকে সরিয়ে দিল নির্বাচন কমিশন। নতুন এসপি হলেন অজয় প্রসাদ।
নরেন্দ্র মোদীকে নিয়ে ওয়েব সিরিজ-অ্যা কমন ম্যানের ওপর নিষেধজ্ঞা জারি করল নির্বাচন কমিশন। অনলাইনে থাকা ৫ টি এপিসোডই সরিয়ে ফেলার নির্দেশ কমিশনের।
সাহস থাকা ভালো, দুঃসাহস ভালো নয়। হারাতঙ্ক রোগে ভুগছেন মোদী। নদিয়ায় বললেন মমতা।
কৃষ্ণনগরে মহুয়া মৈত্র। রানাঘাটে রুপালী বিশ্বাস। দলীয় প্রার্থীর সমর্থনে জনসভা করলেন তৃণমূল সুপ্রিমো। কৃষ্ণনগরে রোড শো করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
মধ্যরাতে কানপুরের কাছে লাইনচ্যুত হাওড়া-দিল্লিগামী পূর্বা এক্সপ্রেস। ট্রেনের ১২টি কামরা লাইনচ্যুত। আহত ১৪ জন, হতাহতের খবর নেই।
৩ দিন ধরে আমার স্বামী নিখোঁজ। স্বামীর মা-বাবা খুব চিন্তিত। ওকে ফিরিয়ে দিন। আমার সাথে সম্পর্কে কোনও চিঁর নেই। পুলিশ প্রশাসন তদন্ত করুক। বললেন নিখোঁজ নোডাল অফিসার অর্ণব রায়ের স্ত্রী।
কোচবিহারের ৩৫০টি বুথে পুনর্নির্বাচনের সম্ভাবনা। বিজেপির দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে স্ক্রুটিনির রিপোর্ট দেখবেন বিশেষ পর্যবেক্ষক। তারপরই নেওয়া হতে পারে পুনর্নির্বাচনের সিদ্ধান্ত।
বাংলায় বিজেপির সমর্থনে দিদির ঘুমে ব্রেক পড়েছে। রাজ্যে দুর্নীতির শাসন চলছে। ভোটের ফলই সবকিছুর জবাব দেবে। বাংলায় বড় কিছু ঘটবে। বুনিয়াদপুরের সভা থেকে মমতাকে আক্রমণ মোদীর।
চতুর্থ দফায় কৃষ্ণনগর ও রানাঘাটে ভোটের আগে আজ নদিয়ায় তৃণমূল সুপ্রিমো। রানাঘাট লোকসভার বগুলায় ও কৃষ্ণনগরে আজ দুপুরে জনসভা করবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
তৃতীয় দফায় ৩২৪ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী নিয়োগের সিদ্ধান্ত নিল নির্বাচন কমিশন। ৯০ শতাংশ বুথেই থাকবে কেন্দ্রীয় বাহিনী। জানালেন বিশেষ নির্বাচনী পর্যবেক্ষক অজয় নায়েক।
এই নির্বাচন ভারত গড়ার নির্বাচন। মোদী খমতায় এলে মানুষের অধিকার খর্ব করবেন। বালুরঘাটের নির্বাচনী সভা থেকে বিজেপিকে নিশানা তৃণমূলের।
বহরমপুরের খাস তালুকে অধীর চৌধুরিকে উৎখাতে ডাক মমতার। কংগ্রেস আরএসএস আঁতাতের তত্ব তুললেন।

খেলার মাঠে “চৌকিদার” এলো কোথা থেকে?

ওয়েব ডেস্ক: স্টেডিয়ামে উপচে পড়ছে ভীড়। মাঠে খেলা চলছে রাজস্থান রয়ালস বনাম কিংস ইলেভেন পঞ্জাব। বাঁধ ভাঙা উৎসাহে যার যার নিজের পছন্দের টিমকে সাপোর্ট করছে সবাই। খেলার টিম নয়, সাপোর্ট করা চলছিল পলিটিকাল টিমকে। খেলা চলাকালীন হঠাৎ-ই ভেসে এল রাহুল গান্ধীর তোলা স্লোগান ‘চৌকিদার চোর হ্যায়’।

ঘটনা নিয়ে ইতিমধ্যে শোরগোল পড়ে গেছে নেট দুনিয়ায়। একদিকে আইপিএল অন্য দিকে গণতন্ত্রের উৎসব লোকসভা নির্বাচন, দুই নিয়েই উন্মাদনার শেষ নেই গোটা দেশে। তাই খেলা দেখতে দেখতেই রাজনৈতিক দলের হয়ে স্লোগান দিয়ে দিলেন কিছু দর্শক।

টিভি স্ক্রিনে দেখা না গেলেও স্লোগানে মেতে উঠেছিল মাঠ। ইতিমধ্যে একটি ছবিও ভাইরাল হয়েছে। যেখানে একদল দর্শকের তেরঙ্গা রাঙা টি-শার্টে লেখা আছে “চৌকিদার চোর হ্যায়”। সোশ্যাল মিডিয়ায় এখন বহুল চর্চিত শব্দ ‘চৌকিদার’। শাসক বিরোধীর প্রচারের মুখ্য বিষয়। এই নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াও দ্বি-বিভক্ত।

রাহুল গান্ধী আগেই রাফেল দুর্নীতি নিয়ে মুখ খুলতে গিয়ে “চৌকিদার চোর হ্যায়” কথাটি বলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উদ্দেশ্যে। ইতিপূর্বে রাহুল গান্ধী বিভিন্ন সভায় মঞ্চে দাঁড়িয়ে “চৌকিদার…. বলেছেন, তার সমর্থকেরা উত্তর দিয়েছে …. চোর হ্যায়” মালদহে প্রচারে এসেও এই দৃশ্য দেখা গেছে। ২০১৪ আইপিএল-এর মাঠে মোদী মোদী সেলোগান উঠেছিল। এবার “চৌকিদার চোর হ্যায়” স্লোগানের গুঞ্জন ঘুরছে মানুষের মুখে মুখে, যা মোদীর পক্ষে একেবারেই নেতিবাচক প্রভাব।