Date : 2021-07-23

চলে গেলেন ‘টেনিদা’

ওয়েব ডেস্ক: কোনোদিন ভাবেননি চলচ্চিত্র জগৎ-এ পা রাখবেন, অথচ বাঙালির মননে আজও তিনি জীবন্ত ‘টেনিদা’।

খুব কম সময়ে বাংলা চলচ্চিত্রে প্রথম সারির কৌতুক অভিনেতা হতে পেরেছিলেন চিন্ময় রায়।

রবিবার রাত ১০টা নাগাদ সল্টলেকের বাসভবনে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন তিনি।

মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৯ বছর।

বার্ধক্যজনিত কারণে দীর্ঘদিন অসুস্থ ছিলেন তিনি।

বছরখানেক অাগে ফ্ল্যাটের নীচ থেকে রক্তাক্ত অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করা হয়েছিল।

স্থানীয় সূত্রে তাঁর আত্মঘাতী হওয়ার জল্পনা উঠেছিল। ঠিক কি কারণে তিনি ফ্ল্যাট থেকে পড়ে যান তা এখনো রহস্য।

সেই সময় তাঁর শরীরের একাধিক জায়গায় গুরুতর আঘাত লাগে। সেই থেকেই অসুস্থতায় ভুগছিলেন তিনি।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, সোমবার তাঁর শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে। বাংলা চলচ্চিত্র জগৎ-এ ৬০ দশকের শেষদিকে পা রাখেন তিনি।

কমেডি চরিত্রে অসামান্য দক্ষতার সঙ্গে অভিনয় অচিরেই তাঁকে জনপ্রিয় করে তোলে।

তাঁর অভিনীত কিছু উল্লেখযোগ্য ছবি হল, ‘বসন্ত বিলাপ’, ‘চারমূর্তি’, ‘গল্প হলেও সত্যি’, ‘ননীগোপালের বিয়ে’ ইত্যাদি। সাদামাটা পোশাকে ছিমছাম অভিনয় করতেন তিনি।

অভিনয় জীবনে তাঁর আগমন নান্দীকার থিয়েটার মঞ্চ থেকে। তবে থিয়েটার দলে বেশি দিন ছিলেন না।

চিন্ময়বাবুর জন্ম বাংলাদেশের কুমিল্লায় ১৯৪০ সালের ১৬ জানুয়ারি। তাঁর মৃত্যুতে শোকের ছায়া চলচ্চিত্র মহলে। চিন্ময় রায়ের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে টুইট করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।