Date : 2021-02-25

মাথাভাঙার সভায় এনআরসি নিয়ে বিজেপিকে চ্যালেঞ্জ মমতার

কোচবিহার: প্রথম দফার নির্বাচন শুরু হতে আর ৭টা দিন বাকি। তার আগেই উত্তরবঙ্গে নির্বাচনী প্রচার সফরে মুখ্যমন্ত্রী। কোচবিহারে দিনহাটার পর মাথাভাঙায় মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচনী জনসভা করলেন। এদিন সভায় তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন বসিরহাটের তৃণমূল প্রার্থী নুসরত জাহান। দিনহাটার নির্বাচনী সভা থেকে ব্রিগেডে প্রধানমন্ত্রীর মন্তব্যের কটাক্ষ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ২৩ টি আসনকে পাখির চোখ করে রাজ্যে নির্বাচনে অংশ নিতে চলেছে গেরুয়া শিবির। এরমধ্যে উত্তরবঙ্গের ৮টি আসনই জয়ের লক্ষ্য স্থির করে রেখেছে বিজেপি। সেখানে তৃণমূলের সংগঠনকে শক্ত করতে মুখ্যমন্ত্রী পর পর দুটি সভা করলেন। এই মঞ্চ থেকে দলের জেলা নেতৃত্বকে সংঘবদ্ধ ভাবে নির্বাচনে অংশ নিতে নির্দেশ দেন মমতা।

এয়ারস্টাইক প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী মোদীর মন্তব্যকে তোপ দেগে বলেন, “এবার ‘ভোটারদেরস্ট্রাইক’ হবে। সবাইকে তাড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিচ্ছে বিজেপি। বাংলায় এনআরসি হতে দেব না।” উত্তরবঙ্গে উন্নয়নের খতিয়ান দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, রাজবংশী এবং কামতাপুরী ভাষাকে যথাযোগ্য মর্যাদা দেওয়া হয়েছে। এমনকি ছিটমহল সমস্যার সমাধান করা হয়েছে, তৈরি হয়েছে পঞ্চানন বর্মা ইউনিভার্সিটি। এলাকার উন্নয়নের জন্য ১১০০ কোটি টাকা ব্যয় করেছে রাজ্য সরকার। মমতা এদিন মাথাভাঙার সভায় বলেন,”ছিটমহলবাসী জমির অধিকার পেয়েছে।

আন্তর্জাতিক চুক্তি হওয়ায় ভারতবাসী হওয়ার বৈধতা পেয়েছে ওরা। অনেক লড়াই, অনেক আন্দোলন করে স্বীকৃতি পেয়েছে। তবে অমিত শাহর বক্তব্যে অশনিসংকেত দেখছে ছিটমহলবাসী।” এনআরসি চালু হলে ছিটমহলবাসীর ভবিষ্যৎ কি হবে তা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, এত দিনের আন্দোলনের পর পাওয়া ভিটেমাটি ছেড়ে কি তবে অন্যত্র পাড়ি দিতে হবে? বিজেপির এনআরসি প্রসঙ্গে মাথাভাঙার সভা থেকে এভাবেই তোপ দাগেন মুখ্যমন্ত্রী।