Date : 2019-05-27

Breaking
কংগ্রেসের ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকে ব্যর্থতার দায় স্বীকার করে পদত্যাগের ইচ্ছাপ্রকাশ রাহুলের। গৃহীত হল না ইস্তফা। রাহুলেই ভরসা কংগ্রেসের। বৈঠকে সংগঠন ঢেলে সাজানোর পরিকল্পনা।
সাম্প্রদায়িক হিংসা ছড়িয়ে জিতেছে বিজেপি। নির্বাচন কমিশন ওদের হয়ে কাজ করেছে। কালীঘাটে বৈঠক শেষে বললেন মুখ্যমন্ত্রী।
পদে থেকেও গত কয়েক মাসে কাজ করতে পারিনি। সেই জন্য মুখ্যমন্ত্রীত্ব ছাড়তে চেয়েছিলাম। দল চায়নি তাই পদত্যাগ করিনি। কালীঘাটে সাংবাদিক বৈঠকে বললেন মুখ্যমন্ত্রী।
ভোটের ফল পর্যালোচনায় কালীঘাটে বৈঠক মুখ্যমন্ত্রীর। আসন কমলেও ভোট বেড়েছে বলে দাবি করেন তিনি। আগামীদিনে এক হয়ে লড়াই করার বার্তা দলীয় কর্মীদের।
আজই সরকার গঠনের দাবি রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন নরেন্দ্র মোদী। রাজ্য থেকে বেশ কয়েকজনের মন্ত্রী হওয়ার সম্ভাবনা।
সর্বসম্মতিতে এনডিএ নেতা নির্বাচিত হলেন নরেন্দ্র মোদী। সংসদের সেন্ট্রল হলে পুষ্পস্তবক দিয়ে মোদীকে অভিবাদন। সাক্ষী থাকলেন রাজ্য জয়ী বিজেপি সাংসদরাও।
দেগঙ্গায় তৃণমূল কর্মীদের জোর করে জয় শ্রী রাম বলানোয় সংঘর্ষ বিজেপি-তৃণমূলের। সংঘর্ষে আহত দুইপক্ষের প্রায় ১২ জন। ভাঙচুর করা হয় একাধিক বাড়ি। এলাকায় জারি ১৪৪ ধারা, মোতায়েন বাহিনী।
সম্ভবত ৩০শে মে-ই ফের প্রধানমন্ত্রী পদে শপথ নেবেন মোদী। বিকেল ৪টে থেকে ৫টার মধ্যে রাষ্ট্রপতি ভবনে শপথ। তার আগে ২৮ তারিখ বারাণসীতে মোদীর রোড শো।
দলে থেকেও দলকে হেয় করার অভিযোগ। মুকুল পুত্র শুভ্রাংশু রায়কে ৬ বছরের জন্য সাসপেন্ড করল তৃণমূল। মুখ্যমন্ত্রীর অনুমোদন নিয়েই সাসপেন্ড। বললেন পার্থ।

টাকা দিলে নিন, কিন্তু বিজেপিকে ভোট নয়: মমতা

ওয়েব ডেস্ক: পঞ্চম দফা শেষ হতেই ষষ্ঠ দফা ভোটে বাঁকুড়ায় সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের হয়ে প্রচারে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রচার মঞ্চ থেকে তাকে ফের একবার নরেন্দ্র মোদী এবং অমিত শাহকে আক্রমণ করতে শোনা গেল। নির্বাচনী প্রচার পর্ব এখন প্রায় শেষ লগ্নে।

যতই দিন এগিয়ে আসছে ততই বাক্ যুদ্ধ চড়ছে রাজ্যে শাসক বিরোধী উভয় পক্ষেরই। ষষ্ঠ দফায় নির্বাচন হতে চলেছে, বাঁকুড়া, মেদিনীপুর, বিষ্ণুপুর, পুরুলিয়া, ঘাটাল, ঝাড়গ্রাম, কাঁথি এবং তমলুকে। রাণিবাঁধের সভায় কি বললেন তৃণমূল নেত্রী, একঝলকে…

  • দুর্গাপুজোর নামে মা কালির ছবি দেয়, এদিকে ধর্মের নামে দাঙ্গা বাধায়।
  • উন্নয়নের বদলে দেশে হিংসার রাজনীতি করছে ওরা।
  • আচ্ছে দিন আসলে বিজেপির মিথ্যে প্রতিশ্রুতি। ১৫ লক্ষ টাকা দেবে বলে দেয়নি।
  • আমি সব ধর্মই মানি। মরে গেলেও বিজেপির স্লোগান দেব না। আমাদের স্লোগান, জয় হিন্দ, বন্দে মাতরম, জয় জওয়ান জয় কিষান, মা-মাটি-মানুষ।
  • আমি সব ঠাকুর, সব সংস্কৃতি, সব ধর্ম মানব, শুধু তুমি যাকে মানতে বলবে তাকে মানব না।
  • দেশ ভক্তির নামে দেশের দুর্যোগ নরেন্দ্র মোদী।
  • নরেন্দ্র মোদীর আমলে দেশে ৩ কোটি ছেলে মেয়ের চাকরি গেছে।
  • মোদীর আমলে ১২ হাজার কৃষক না খেতে পেয়ে আত্মহত্যা করেছে।
  • ভোট চাইতে আসলে টাকা দিলে নিয়ে নেবেন। কিন্তু ভোট বিজেপিকে দেবেন না।
  • এতদিন কেন দেখা ছিল না, ভোটের সময় বসন্তের কোকিল হয়ে উড়ে এসেছে মোদী।
  • এর আগে নোট বাতিল করেছে। কোনদিন ব্যাঙ্ক বাতিল করে দেবে নরেন্দ্র মোদী।

বাঁকুড়ার সভা থেকে এদিন কাজের খতিয়ান তুলে ধরে ঢেলে উন্নয়ন করার কথা ঘোষণা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন….

  • বাংলায় আমরা কৃষকদের খাজনা মকুব করেছি। কৃষি জমিতে মিউটেশন ফি মকুব করেছি। জেলায় জেলায় তৈরি করেছে কৃষক মান্ডি। কৃষি বিমার প্রিমিয়াম দিচ্ছি।
  • বাঁকুড়ার মানুষের জলকষ্ট দুর হয়েছে। জেলা পরিষদকে নির্দেশ দিচ্ছি জল ভরো জল ধরো প্রকল্পের উপর যেন তারা নজর রাখে।
  • বিজেপি এখনও মাওবাদী সমস্যার সমাধান করতে পারেনি। ছত্তিশগড়, ঝড়খন্ডে আজও মাওবাদী সমস্যা অব্যহত। বাংলায় কিন্তু জঙ্গলমহল মাওবাদী মুক্ত।

এদিন সভা থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একগুচ্ছ প্রতিশ্রুতি কথা শোনান। এদিন পুরুলিয়ায় সভা করেন রাহুল গান্ধী। রাজ্যে আজ বিজেপির হয়ে ভোট প্রচার করেছেন নির্মলা সীতারমন ও অমিত শাহ। দিল্লি শেষ পর্যন্ত কার দখলে থাকে সেই দিকেই তাকিয়ে দেশের রাজনৈতিক মহল।