Date : 2019-05-27

Breaking
কংগ্রেসের ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকে ব্যর্থতার দায় স্বীকার করে পদত্যাগের ইচ্ছাপ্রকাশ রাহুলের। গৃহীত হল না ইস্তফা। রাহুলেই ভরসা কংগ্রেসের। বৈঠকে সংগঠন ঢেলে সাজানোর পরিকল্পনা।
সাম্প্রদায়িক হিংসা ছড়িয়ে জিতেছে বিজেপি। নির্বাচন কমিশন ওদের হয়ে কাজ করেছে। কালীঘাটে বৈঠক শেষে বললেন মুখ্যমন্ত্রী।
পদে থেকেও গত কয়েক মাসে কাজ করতে পারিনি। সেই জন্য মুখ্যমন্ত্রীত্ব ছাড়তে চেয়েছিলাম। দল চায়নি তাই পদত্যাগ করিনি। কালীঘাটে সাংবাদিক বৈঠকে বললেন মুখ্যমন্ত্রী।
ভোটের ফল পর্যালোচনায় কালীঘাটে বৈঠক মুখ্যমন্ত্রীর। আসন কমলেও ভোট বেড়েছে বলে দাবি করেন তিনি। আগামীদিনে এক হয়ে লড়াই করার বার্তা দলীয় কর্মীদের।
আজই সরকার গঠনের দাবি রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন নরেন্দ্র মোদী। রাজ্য থেকে বেশ কয়েকজনের মন্ত্রী হওয়ার সম্ভাবনা।
সর্বসম্মতিতে এনডিএ নেতা নির্বাচিত হলেন নরেন্দ্র মোদী। সংসদের সেন্ট্রল হলে পুষ্পস্তবক দিয়ে মোদীকে অভিবাদন। সাক্ষী থাকলেন রাজ্য জয়ী বিজেপি সাংসদরাও।
দেগঙ্গায় তৃণমূল কর্মীদের জোর করে জয় শ্রী রাম বলানোয় সংঘর্ষ বিজেপি-তৃণমূলের। সংঘর্ষে আহত দুইপক্ষের প্রায় ১২ জন। ভাঙচুর করা হয় একাধিক বাড়ি। এলাকায় জারি ১৪৪ ধারা, মোতায়েন বাহিনী।
সম্ভবত ৩০শে মে-ই ফের প্রধানমন্ত্রী পদে শপথ নেবেন মোদী। বিকেল ৪টে থেকে ৫টার মধ্যে রাষ্ট্রপতি ভবনে শপথ। তার আগে ২৮ তারিখ বারাণসীতে মোদীর রোড শো।
দলে থেকেও দলকে হেয় করার অভিযোগ। মুকুল পুত্র শুভ্রাংশু রায়কে ৬ বছরের জন্য সাসপেন্ড করল তৃণমূল। মুখ্যমন্ত্রীর অনুমোদন নিয়েই সাসপেন্ড। বললেন পার্থ।

মুখ্যমন্ত্রীর প্রোফাইলে বিদ্যাসাগর, রাজ্য জুড়ে ধিক্কার মিছিল

কলকাতা: অমিত শাহর রোড শো কে কেন্দ্র করে দুপুর থেকেই উত্তেজনা ছিল কলেজ স্ট্রিট চত্বরে। সময় গড়াতে সেই পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হতে শুরু করে। অমিত শাহর রোড শো কে কেন্দ্র করে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের গেটের সামনে বেশ কিছু ছাত্রছাত্রী ‘গো ব্যাক’ স্লোগান দিতে শুরু করে। স্লোগান ক্রমশ উত্তপ্ত হতে থাকে। গেটের বাইরে পাল্টা স্লোগান দিতে শুরু করে বিজেপির সমর্থকরা।

অমিত শাহর গাড়ি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে পৌঁছতেই পরিস্থিতি চুড়ান্ত বিশৃঙ্খলার আকার নেয়। বিক্ষোভরত ছাত্র-ছাত্রীদের দিকে ব্যারিকেট ভেঙে এগিয়ে আসে উত্তেজিত বিজেপি সমর্থকরা।

দু পক্ষের মধ্যে শুরু হয় লাঠি বাঁশ নিয়ে যুদ্ধ। মুহুর্তের মধ্যে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পরিস্থিতি।

একদিকে তান্ডব চলছিল কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে, অন্যদিকে অমিত শাহর গাড়ি বিদ্যাসাগর কলেজের সামনে পৌঁছতেই পরিস্থিতি অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে।

সেখানেও বিজেপি সমর্থকদের বিরুদ্ধে স্লোগান দিচ্ছিল কলেজের ছাত্র সংসদের সদস্যরা। বিজেপি সমর্থকদের সঙ্গে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পরেন তারাও।

কলেজের ভিতরে ঢুকে বিদ্যাসাগরের মুর্তি ভাঙার অভিযোগ ওঠে। শিক্ষাক্ষেত্রে বেনজির আক্রমণের ঘটনায় সোচ্চার হয় সব মহল। বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার প্রতিবাদে টুইট্যার হ্যান্ডেল ও ফেসবুকে নিজের ছবি বদলে ফেলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

প্রোফাইলের কভার ফটো কালো করে বিদ্যাসাগর ছবি দিয়ে প্রতিবাদ জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে প্রতিবাদ মিছিলের চডাক দেওয়া হয়েছে রাজ্য জুড়ে। বুধবারই প্রতিবাদ মিছিল বার করবে তৃণমূল।

ধিক্কার মিছিলে হাঁটবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। বেলেঘাটা থেকে শ্যামবাজার পর্যন্ত মিছিল হবে। গলায় মণীষীদের ছবি ঝুলিয়ে দলের নেতা কর্মীদের মিছিলে হাঁটার নির্দেশ দিয়েছেন নেত্রী।

শহরে একাধিক মিছিল বের করছে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সংগঠন।বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার ঘটনায় কমিশনে অভিযোগ জানাতে চলেছে তৃণমূল।

সূত্রের খবর, পাল্টা অভিযোগ জানাবে বিজেপিও। সপ্তম দফা নির্বাচনের আগে কমিশনের সর্বদলীয় বৈঠকেও উঠতে পারে হামলার ঘটনা।