Date : 2021-04-21

#ICCworldcup2019: মঙ্গলবার আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে তৈরি শ্রীলঙ্কা

ওয়েব ডেস্ক : মঙ্গলবার ভারতীয় সময় বিকেল ৩টে কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেনে ঘুরে দাঁড়ানোর ম্যাচে মুখোমুখি আফগানিস্তান-শ্রীলঙ্কা। নিউজিল্যান্ডের কাছে গোহারা হারের পর দ্বিতীয় ম্যাচ থেকেই ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া লঙ্কা-বাহিনী। অন্যদিকে অজিদের বিপক্ষে হারের হ্যাঙ্গওভার কাটিয়ে উঠতে মুখিয়ে আফগান শিবিরও। লঙ্কানদের বিপক্ষে নিজেদের সেরা তিন স্পিন অস্ত্র দিয়েই বাজিমাত করতে প্রস্তুত গুলবাদিন নইবের দল। যদিও ঐতিহ্যে বা কৌলিন্যের বিচারে অনেকেই এই ম্যাচে এগিয়ে রাখছে করুনারত্নের শ্রীলঙ্কাকেই।

করুনারত্নের দল এই ম্যাচ হারলে, তাঁদের পক্ষে বাকি দলগুলোর বিপক্ষে আর কোনও ম্যাচ জেতা সম্ভব কিনা সেই নিয়েও সন্দেহ দেখা দেবে। শেষ ১৫টি ম্যাচে মাত্র ১টিতে জিতেছে শ্রীলঙ্কা। ক্রিকেটারদের অফ ফর্ম, সঙ্গে ঘনঘন অধিনায়ক পরিবর্তন কার্যত খাদের কিনারায় এনে দাঁড় করিয়ে দিয়েছে সেই দেশের ক্রিকেটকে। বারুদ স্তপের ওপর দাঁড়িয়ে লঙ্কান ক্রিকেট। ফের একটা হারই দাবানলের রূপ নিতে পারে লঙ্কান দলের অন্দরে। যদিও কুশল পেরোর মতো প্রতিভাবান ক্রিকেটারদের সঙ্গে করুনারত্নের সাম্প্রতিক ফর্ম চিন্তা কমাচ্ছে শ্রীলঙ্কার।

কিউয়িদের শক্তিশালি পেস অ্যাটাকের কাছে অসহায় হয়ে আত্মসমর্পণ করতে হয়েছিল লঙ্কা-বাহিনীকে, তবে আফাগন বোলিং অ্যাটাকের পেস বিভাগ অতোটা শক্তিশালি নয়, এটাই যা বাঁচোয়া। কার্ডিফের পিচে ঘাস থাকায়, টস জিতে বোলিং নিতে পারে দুই দলই। শেষ ম্যাচে মাত্র ৮ বলের মধ্যেই দুই আফগান ওপেনার সাজঘরে ফিরেছিলেন। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তাই ওপেনারদের থেকে আরও দায়িত্ববান ইনিংসের প্রত্যাশায় আফগান অধিনায়ক।

বিশ্বকাপের আগেই মনে করা হচ্ছিল, ব্যাটিং বিভাগই ভোগাবে আফগানদের। হয়েছেও তাই। যদিও লঙ্কানদের বোলিং বিভাগ এই বিশ্বকাপের অন্যতম দুর্বল লাইন আপ। বয়সের ভার স্পষ্ট মালিঙ্গার বোলিংয়ে। লকমল বা উদানা, কারোরই অতিরিক্ত পেস নেই বোলিংয়ে। ফলে ২০১৯ বিশ্বকাপে কোনও ম্যাচ জয়ের এটাই সেরা সুযোগ আফগানদের কাছে। যদিও আফগান থিঙ্ক ট্যাঙ্কের প্রাথমিক লক্ষ্যে অবশ্যই ব্যাটসম্যানদের ৫০ ওভার টিকে থাকা।