Date : 2019-12-11

ঘর ভেঙেছে বন্যায়, প্রাণ বাঁচাতে তিনদিন আমগাছেই আশ্রয় কেরালাবাসি এই যুগলের…

ওয়েব ডেস্ক: কেরালার বন্যা আতঙ্কে সারা শহর। আপাতত মারা গেছে প্রায় ৬১ জন মানুষ। প্রায় ৬ লাখেরও বেশি মানুষ প্রাণপন চেষ্টায় মাথার উপরে ছাদ ও দুবেলা একমুঠো জোগানোর যুদ্ধে।

এমন একটা সাংঘাতিক দুর্যোগের মাঝে দাঁড়িয়ে নিজেদের প্রাণ বাঁচাতে এক যুগল সাহায্য নিলেন গাছের। কেরালার রত্নাবাঈ ও তাঁর স্বামী কেডাপ্পা দুজনেই এই পুরো দুর্যোগের সময়কালে প্রাণ বাঁচানোর জন্য দিন কাটিয়েছেন আম গাছে।

ভালোবেসে নিজের কম্বলকেই বিয়ে করলেন এই মহিলা…

তাদের জিজ্ঞেস করলে বলেন, তাঁরা প্রথম দুইদিন নিজেদের বাড়ির ছাদে একটা প্লাস্টিক গায়ে জড়িয়ে কাটায়। তবে তার পরের দিনই প্রচন্ড বন্যায় ভেঙে যায় তাঁদের বাড়ি। নিজেদের বাঁচাতে চড়ে বসে বাড়ির পাশের আমগাছটির উপর। তবে তা এতোটাও সহজ ছিল না। উঠতে গিয়ে বাড়ির একটি অংশ ভেঙে পড়ে রত্নাবাঈয়ের উপর।

জাতীয় পতাকার নকশায় রয়েছে এই মুসলিম মহিলার অবদান….

কোনোরকমে দড়ি দিয়ে টেনে তোলা হয় তাঁকে। তিনদিন ধরে কোনো আশা ছিল না বাঁচার। তাঁরা যে ক্ষেতে কাজ করত তার মালিক সারা রাত তাদের উপর টর্চের আলো ফেলে রাখেন, তাদের মনের জোর দেওযার জন্য। পরে তাদের উদ্ধার করে NDRF টিম। এবম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শারীরিকভাবে কিছুটা আহত হলেও, তাঁদের মানসিক আঘাতটা কাটিয়ে উঠতে সময় লাগবে।