Date : 2022-05-25

সকালে কাজে এসে একটু নেচে নিতে হবে এই অফিসে, এটাই নিয়ম, দেখুন ভিডিও….

ওয়েব ডেস্ক: জয়েনিং লেটার হাতে পেয়ে অফিসিয়ালি ৮ ঘন্টা কাজের সময় নির্ধারিত করেই হয়তো কাজে যোগ দেন আপনি। কিন্তু এমন মানুষ আজকের দিনে খুব কমই আছেন যারা নির্ধারিত সময় অফিস থেকে বেরতে পারেন। কাজের সময়টা কখনও ১০ ঘন্টা আবার কখনও ১২ ঘন্টাও পেড়িয়ে যায়। কর্পোরেট লাইফে অনবরত কাজের চাপ বেড়ে যাওয়া, আকাশ ছোঁয়ার প্রচেষ্টা থাকে। রাতদিন কাজের চাপে হিমশিম খেতে হয় সবাইকেই। অজান্তেই বাড়ির পরিবেশ, অফ টাইম মিস করতে থাকেন অধিকাংশ মানুষ। ক্রমাগত অফিসে কাজের চাপে পরিবারকেই সময় দিতে পারেন না বহু মানুষ, নিজেকে সময় দেওয়ার কথা তো ভুলেই যায় তারা।

আরও পড়ুন : জন্ম থেকেই নেই পা-হাত, বছর ১৭র এই নুর দক্ষ ভায়োলিন, গান ও ছবি আঁকতে

ফল স্বরূপ সময়ের আগেই নানান ব্যধিতে আক্রান্ত হন অধিকাংশ মানুষ। কর্মক্ষেত্রে নিজের দক্ষতা প্রমাণ করতে নিজেকে সুস্থ রাখা একান্ত কাম্য। ধিরে ধিরে একঘেয়ে হয়ে ওঠা জীবনকে রোজ রিচার্জ করতে তাই নিজেরাই উদ্যোগ নিলেন মুম্বইয়ের এই আইটি অফিসের কর্মীরা। রোজ কাজ শুরুর আগে কাজের পরিবেশ তৈরি করে নেন কর্মীরা নিজেরাই। অফিসের ভারাক্রান্ত পরিবেশ দূর করতে প্রতিদিন কাজ শুরুর আগে নাচ,গান, হুল্লোড়ে করেন অফিসের কর্মীরা।

আরও পড়ুন : ২৯ বছর পর আস্তাকুঁড়ের “মৃত সদ্যজাত কন্যা” কেবিসির মঞ্চে

সম্প্রতি ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে এমনই একটি ভিডিও। যেখানে অফিসের মধ্যেই কর্মীরা কর্মব্যস্ত দিনকে একটু আলাদা করে নেন। প্রতিদিন অন্তত ৫ থেকে ১০ মিনিট এভাবেই নিজেদের মানসিক ও শারীরিক সুস্থতা খুঁজে নেন এই অফিসের কর্মীরা। কখনও “ইয়ার বিনা চ্যান কাহা রে”, আবার কখনও “ওয়াই দিস কোলা ভেরি ডি”, গানের তালে কোমর দুলিয়ে নেন কর্মীরা। কর্মব্যস্ত প্রতিটি দিনই এভাবে রঙিন করে তোলেন তারা নিজের পছন্দ মতো গানের তালে। নারী কিংবা পুরুষ এই বিশাল কর্মযজ্ঞয় নিজেদের ভালোল লাগাকে এভাবেই বহন করে চলেছেন।