Date : 2019-11-19

চিন থেকে জাতীয় পতাকা আমদানী বন্ধ করল কেন্দ্র….

ওয়েব ডেস্ক: খাদি গ্রামোদ্যোগ নিগমের বাজার চাঙ্গা করতে এবার চিন থেকে জাতীয় পতাকা আমদানি নিষিদ্ধ করল ভারত সরকার। পাশাপাশি চিনের দ্রব্যের উপর নিষেধজ্ঞা জারি করার প্রথম ধাপ এগিয়ে গেল ভারত সরকার। দেওয়ালির আগে চিন থেকে প্রতি বছর প্রচুর টাকার এল.ই.ডি লাইট আমদানি করা হয়। এছাড়াও চিনা মাটির তৈরি দেব-দেবীর মূর্তিও আমদানি করা হয়। কেন্দ্রীয় বৈদেশিক বানিজ্য দফতরের থেকে নোটিফিকেশন জারি করে জাতীয় পতাকা আমদানির উপর নিষেধজ্ঞা জারি করা হয়। জাতীয় পতাকা আইন অনুসারে এই পতাকা তৈরি করা হবে একমাত্র খাদিতে তৈরি হাতে কাটা সুতির কাপড় বা রেশমের কাপড়ের দিয়ে। তাই বলা যায় পার্লামেন্টে প্রণিত আইন অনুসারে একমাত্র খাদিকেই বিধিবদ্ধ ভাবে জাতীয় পতাকা তৈরির অধিকার দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন ; ফের অর্থনীতিতে বাঙালির নোবেল জয়

খাদির তরফ থেকে দু বছরের পরিসংখ্যান নেওয়া হয়েছে যেখানে স্পষ্ট ভাবেই উঠে এসেছে চিন থেকে আমদানিকৃত জাতীয় পতাকা বাজার এমন ভাবে দখল করেছে যে খাদির তৈরি পতাকা অনেকটাই পিছিয়ে গেছে প্রতিযোগীতায়। পরিসংখ্যান বলছে, ২০১৭-১৮সালে খাদির তৈরি জাতীয় পতাকা ৩.৬৯ কোটি টাকা ব্যবসা করে। সেখানে মাত্র একবছরের মধ্যেই ব্যবসা নেমে আসে ৩.১৬ কোটি টাকায়। খাদি গ্রামোদ্যোগ নিগমের চেয়ারম্যান ভিনাই কুমার সাকসেনা জানিয়েছেন, খাদির তৈরি জাতীয় পতাকার চাহিদা বাজারে কমে যাওয়ার বিষয়টি নজরে আনা হয়েছে কেন্দ্রীয় শিল্প ও বানিজ্য মন্ত্রী পীযূষ গোয়েলের।

আরও পড়ুন : আজই শেষ হবে অযোধ্যা মামলার শুনানি, রায়ের দিকে তাকিয়ে গোটা দেশ

খাদি গ্রামোদ্যোগ নিগমের তরফ থেকে চিঠি পাঠিয়ে কেন্দ্রীয় শিল্প ও বানিজ্য মন্ত্রীকে জানানো হয়, সংবিধানে জাতীয় পতাকা আইনকে লঙ্ঘন করা হচ্ছে বাজারে চিনা পতাকার আমদানি করে। এর ফলে খাদির পতাকা বাজার চাহিদা কমছে। ভারতীয় বাজারে এখন চিনা পতাকার আমদানি বেড়েছে। এই চিঠিতেই খাদি শিল্পকে বাঁচাতে এবং জাতীয় পতাকার আইনকে মান্যতা দিয়েই সত্তর চিনা আমদানিকৃত জাতীয় পতাকা ভারতীয় বাজারে নিষিদ্ধ করার কথা ঘোষণা করার আবেদন জানানো হয়েছে।