Date : 2021-10-19

ঐতিহ্যের ভাইফোঁটায় বাঙালির ‘জিয়া-নস্টাল’, জেনে নিন মিষ্টির ‘মিস্ট্রি’…

কলকাতা: “ভাইয়ের কপালে দিলাম ফোঁটা, যমের দুয়ারে পড়ল কাটা”, রাত পোহালেই ঘরে গরে বোন, দিদিদের মুখে মুখে শুরু হবে ভাইয়ের আয়ুকামনার মন্ত্র। এখন অবশ্য সোশ্যাল মিডিয়ার যুগ। দাদা বা ভাই দূরে থাকলেই বা কি? ডিজিটাল ভাইফোঁটাই বা কম কি। মিষ্টি আর ফোঁটার ছবি পোস্ট করে দিলেই হল। তবে উৎসবের শেষে এই দিনটা পরিবারের সকলের সঙ্গে আনন্দ ভাগ করে নিতে মিলিত হওয়ার দিন। এক সেকেন্ডের ক্লিকে কি আর সেই সুখ মেলে? এরপরেই তো ফিরে যেতে হবে রোজনামচার জীবনে। আবার সেই একবছরের প্রতিক্ষা।

নিয়ম আর ডাক্তারের চোখ রাঙানি সত্ত্বেও শেষপাতে কি মিষ্টি ছাড়া চলে! এই তো মাত্র একটা দিনের ব্যাপার, ডায়াটিং-এর অভ্যাস তোলাই থাক। চাহিদা মেটাতে বিজয়ার পর থেকেই উত্তর কলকাতার মিষ্টির দোকানগুলিতে বিরাম নেই। ফিউশন মিষ্টির সঙ্গে পাল্লা দিচ্ছে রসগোল্লা, পান্তুয়া, লবঙ্গলতিকা।

শুকনো মিষ্টি থেকে রসভরা, মিষ্টির সৃষ্টিতে অভিনবত্বের খামতি নেই। তবে ভাইফোঁটাতে রসের মিষ্টির চাহিদা অনেকটাই বেশি এবার। জেন ওয়াই ভাইফোঁটা তাই অভিনবত্ব খোঁজে ফোঁটার থালা থেকে খাওয়ার থালা পর্যন্ত। চিনি দিলেই মিষ্টি! না, তাতেও এবার রয়েছে টুইস্ট।

দেশে সবচেয়ে নিরাপদ শহর কলকাতা, রিপোর্ট ন্যাশানাল ক্রাইম ব্যুরোর

রোজ, ম্যাঙ্গো, চকলেট কত না ফ্লেভার, আর সেই সব মিষ্টিতে আকর্ষিত আট থেকে আশি। সারা বছর মিষ্টির ধারে যাওয়া যাদের বারণ, এক কামড় দিতে তাদেরও মন চায় তাই না? তাদের জন্যেও রয়েছে স্পেশাল ছানার সন্দেশ। উত্তর কলকাতার সেন মহাশয়, কিংবা দ্বারিক এন্ড সন্স একশো দেড়শো বছরের ঐতিহ্য ফুটিয়ে আনছে তারা। দিলখুশ, পারিজাত, মালাই রোল, সরপুরিয়া কাঁচাগোল্লা, নরকেল চন্দ্রপুলির সঙ্গে পাল্লা দিচ্ছে স্ট্রবেরি, বাটার স্কচ, পাইনাপেল বা চকলেট সন্দেশ। এখন শুধু দোকানে পৌঁছে পছন্দ মতো মিষ্টি বাক্সে ভরে নেওয়ার অপেক্ষা।