Date : 2019-10-17

দশমীতে ভারতের হাতে রাফাল, “শস্ত্র পুজো” পুজোর মাধ্যমে উদ্বোধন রাজনাথের…..

ওয়েব ডেস্ক: বিজয়া দশমীর দিনেই রাফাল যুদ্ধ বিমান হাতে পেল ভারত। “শস্ত্র পুজো”র মধ্যে দিয়ে দেশের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং রাফাল যুদ্ধ বিমানের শুভ উদ্বোধন করলেন। ২০১৬ সালে মাল্টিরোল কমব্যাট এয়ারক্র্যাফ্ট রাফাল নেওয়ার জন্য ফ্রন্সের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছিল ভারত। চুক্তি অনুসারে গতকাল প্রথম রাফাল যুদ্ধবিমান হাতে পেল ভারত। ফ্রান্সের ‘দাসো অ্যাভিয়েশন’-এর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে মোট ৫৯ হাজার কোটি টাকা দামের ৩৬ টি রাফাল যুদ্ধবিমান ভারতে এসে পৌঁছবে আগামী বছরের মধ্যেই। প্রসঙ্গত, ৮ অক্টোবর ছিল বায়ুসেনার ৮৭ তম প্রতিষ্ঠা দিবস। সেই দিনে প্রথম রাফাল যুদ্ধবিমান হাতে পায়ে প্রতিরক্ষা মন্ত্রী জানন, “আমি খুব খুশি সঠিক সময়ে রাফাল আমাদের হাতে এল। এই যুদ্ধবিমান ভারতের অস্ত্রভাণ্ডারকে আরও সমৃদ্ধ ও শক্তিশালী করবে।” ফরাসি ভাষায় রাফাল কথার অর্থ বাতাসের ঝাপট।

বায়ুসেনার এয়ার চিফ মার্শাল রাকেশ সিং ভাদোরিয়া বলেন, রাফাল এবং এস-৪০০ মিসাইল ভারতীয় বায়ুসেনার আক্রমণের ক্ষমতাকে এক ধাক্কায় অনেক বেশি শক্তিশালী করে তুলবে। বস্তুত, বায়ুসেনা প্রধানের নামেই প্রথম রাফাল যুদ্ধবিমানের টেল নম্বর রাখা হয়েছে ‘আর বি-১’।

আরও পড়ুন : করতারপুর করিডোর উদ্বোধনে আমন্ত্রণ মনমোহন সিং-কে

ফ্রান্সের সঙ্গে রাফাল চুক্তির সময় ভারতের পক্ষ থেকে মধ্যস্থতাকারী দলের সদ্য হিসাবে উপস্থিত ছিলেন রাকেশ সিং ভাদোরিয়া। ফ্রান্সের তৈরি রাফাল যুদ্ধে খুব ভালো কাজে আসে। কিন্তু ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর তরফে জানানো হয়েছে, রাফাল মূলত দেশের প্রতিরক্ষার কাজে ব্যবহার করা হবে। রাফাল অনেক উঁচু থেকে হামলা চালাতে পারে। তাই যুদ্ধজাহাজ ধ্বংস, অনেক উংচু থেকে মিসাইল নিক্ষেপের কাজে খুব কার্যকারী। এর ফলে বায়ুসেনার ক্ষমতা ক্রমশ বাড়বে।