Date : 2019-11-19

মেয়ের কন্ঠস্বরে ফোন করে প্রতারণা যুবকের, ফাঁদে ব্যান্ডেলের পাত্র….

ওয়েব ডেস্ক: নিজের পছন্দের পাত্রীকে খুঁজে নিতে ম্যাট্রিমনিয়াল সাইটে নিজের প্রোফাইল খুলেছিলেন ব্যান্ডেলের দীপঙ্কর দে নামে এক যুবক। আর সেখানেই পড়লেন প্রতারণার ফাঁদে। মেয়ের গলা নকল করে এক যুবকের বিরুদ্ধে ১২ লক্ষ টাকার প্রতারণার অভিযোগ উঠল। অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ধৃতের নাম রনি দাস, দীপঙ্কর দে-এর অভিযোগের ভিত্তিতে ঠাকুরপুকুরের খান মহম্মদ রোড থেকে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। সূত্রের খবর, তানিয়া রায় নামে ভুয়ো প্রোফাইল খুলে রনি দাস নামে ওই যুবক দিনের পর দিন আলাপ চালিয়ে যায় দীপঙ্কর দে নামে ব্যান্ডেলের ওই যুবকের সঙ্গে। তানিয়া নামে ওই ভুয়ো প্রোফাইলে থাকা একটি মেয়ের ছবি দেখে পছন্দ হয় দীপঙ্কর দে নামে ওই যুবকের।

আরও পড়ুন : টয় ট্রেন থেকে ছবি তুলতে গিয়ে মর্মান্তিক মৃত্যু, দেখুন ঘটনার ভিডিও

পার্শ্ব শিক্ষক হিসাবে একটি স্কুলে চাকরি করেন তানিয়া, এমনটাই জানিয়ে দীর্ঘদিন ধরে কথাবার্তা চালিয়ে যান পেশায় বেসরকারী সংস্থার কর্মী দীপঙ্কর দে-এর সঙ্গে। পারিবারিক অর্থকষ্ট ও মায়ের অসুস্থতার কথা জানিয়ে দফায় দফায় টাকা দাবি করা হয় তানিয়া নামের ভুয়ো প্রোফাইল থেকে। পেটিএম-এর মাধ্যমে ওই টাকা দীপঙ্কর দে পাঠিয়েও দেন। এই ভাবে ১২ লক্ষ টাকা নেওয়ার পর সন্দেহ হয় দীপঙ্কর দে। সে তানিয়ার কাছে ওই টাকা ফেরত চাইলে গত ২ মাস ধরে সমস্ত যোগাযোগ বন্ধ করে দেয় তানিয়া। বাধ্য হয় দীপঙ্কর দে পুরো ঘটনার কথা জানিয়ে চুঁচুড়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। এরপরেই পর্দা ফাঁস হয়। তানিয়া প্রোফাইলের উল্টো দিকে থাকা রনি দাস নামে এক যুবককে হাতে নাতে পাকড়াও করে পুলিশ। ধৃতকে জোরার মাধ্যমে উঠে এসেছে চাঞ্চল্যকর তথ্য। শুধু দীপঙ্কর বাবু নয়, ফেসবুক থেকে সুন্দরী মেয়েদের ছবি সংগ্রহ করে ভুয়ো প্রোফাইল খুলে এর আগেও অনেকের থেকেই জালিয়াতি করত রনি দাস। এমনকি মেয়েদের গলা নকল করে ফোন এবং হোয়াটস অ্যাপে চ্যাটও করত সে।