Date : 2019-12-16

‘ভয়াবহ ও বর্বরোচিত’ ঘটনা, পশু চিকিৎসক ধর্ষনকাণ্ডে স্তম্ভিত হায়দ্রাবাদ পুলিশ….

ওয়েব ডেস্ক:- দিল্লির ঘটনা থেকে শিক্ষা নেয়নি হায়দ্রাবাদ। ফের বর্বরোচিত গণধর্ষনের শিকার তরুণী পশুচিকিৎসক। হায়দ্রাবাদের শামসাবাদ টোল প্লাজা থেকে ৩০ কিমি দূরে একটি ব্রিজের নিচ থেকে তরুণী পশুচিকিৎসকের অগ্নিদগ্ধ দেহ উদ্ধার হয়। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ সূত্রে খবর, ওই তরুণীকে ধর্ষন করার পর পুড়িয়ে খুন করেছে অভিযুক্তরা। ঘটনার পর সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে চার দোষীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ঘটনাস্থল থেকে পশুচিকিৎসকের স্কুটি উদ্ধার হয়েছে। পুলিশ সূত্রে খবর, বুধবার রাতে ওই তরুণী হায়দ্রাবাদের শামসাবাদ টোল প্লাজায় নিজের স্কুটি রাখতেন।

ঘটনাস্থল থেকে তরুণী পরিচিতের বাড়ি যান। ফিরে এসে তিনি দেখেন তার স্কুটারের চাকা ফুটো হয়ে গেছে। ঘটনার আগে পর্যন্ত ওই পশুচিকিৎসক ফোনে তার বোনের সঙ্গে যোগাযোগ করছিলেন। মৃত তরুণীর বোনের বয়ানের ভিত্তিতে,ঘটনার মুহুর্তে তরুণীর ফোন সুইচ অফ হয়ে যায়।

দোকানদার ফেরৎ দেয়নি সাইকেল, পুলিশকে চিঠি দিল ১০ বছরের আবিন

তারপরেই নিখোঁজ ডায়েরি করে পরিবার। তদন্তে নেমে ওই টোল প্লাজার কাছ থেকে মৃতার জুতো, জামাকাপড় ও একটি মদের বোতল উদ্ধার করে সাইবারাবাদ পুলিশ। পুলিশর অনুমান, গণধর্ষণের পর তাঁকে পুড়িয়ে দেওয়া হয়। সিসিটিভি ফুটেজ অনুযায়ী তদন্ত শুরু করে পুলিশ।

ইসরোকে আকাশের ‘চাঁদ’ পেড়ে দিল মুম্বই

তদন্তে নেমে একটি ট্রাকের চালক এবং খালাসিকে প্রথমে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদেরকে জেরা করে আরও দু’জনের খোঁজ পায় পুলিশ। সকলকে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছেন আধিকারিকরা। সমস্ত তথ্য প্রমান সংগ্রহ করে ও ধৃতদের জেরা করে পুলিশের বক্তব্য এই ঘটনা ‘ভয়াবহ ও বর্বরোচিত’। চিকিৎসকের দেহ উদ্ধারের পর ঘটনাস্থল থেকে আরও এক মহিলার দেহ উদ্ধার হয়েছে। তবে এই ঘটনার পশু চিকিৎসক ধর্ষনের ঘটনা সঙ্গে জড়িত কিনা তা এখনও জানা যায়নি। অগ্নিদগ্ধ ও নগ্ন অবস্থায় ওই দেহটিকেও পড়ে থাকতে দেখা যায়। ঘটনায় সিসিটিভি সূত্র ধরে ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করা হয়েছে এক ট্রাকচালক, দুই খালাসিসহ ৪ অভিযুক্ত।