Date : 2019-12-15

হেমন্তিকার আবেশ নিয়ে আকাশে রূপোর চাঁদ, মদনমোহনজির রাসে মাতোয়ারা কোচবিহার…

ওয়েব ডেস্ক:- কদিন আগেও বুলবুলের তাণ্ডবে মুখ লুকিয়েছিল কার্তিকী পূর্ণিমার জ্যোৎস্না। দিন পোহাতেই সোমবার সন্ধ্যার আকাশে রূপোর থালার মতো চাঁদ উঁকি দিল। মধ্য হেমন্তে হালকা হিমের আমেজ নিয়ে হাজির কার্তিকী পূর্ণিমা। এই দিনেই পালিত হয় রাস উৎসব। সেই উপলক্ষ্যে কোচবিহারের মদনমোহন ঠাকুরের রাস উৎসব ঘিরে আয়োজন শেষ পর্যায়ে। সম্প্রীতি অটুট রাখতে মুসলিম ধর্মের তাজিয়ার আদলে তৈরি রাসচক্র। রাজ আমলের রীতি মেনে সোমবার সন্ধ্যায় মদনমোহন ঠাকুরকে পুজো দিয়ে রাসচক্র ঘুরিয়ে উৎসবের সূচনা করবেন জেলাশাসক পবন কাদেয়ান।

রাজাদের অবর্তমানে দায়িত্বপ্রাপ্ত জেলাশাসক দেবত্র ট্রাস্ট বোর্ড সভাপতি হিসেবে এই দায়িত্ব পালন করেন। কোচবিহারের রাসচক্র ঘিরে রয়েছে সম্প্রীতির বার্তা। রাসচক্রটি তৈরি করেন এক মুসলিম পরিবার। সোমবার সন্ধ্যা থেকেই পরম্পরা মেনে রাসচক্রে সামনে শুরু হবে বিশেষ যজ্ঞ। রাজপরিবারের পুরোহিত পবিত্র মন্ত্রোচ্চারণের মাধ্যমে রাসচক্র ঘুরিয়ে দেন। এরপরেই একে একে ভক্তরা পুজো দিতে প্রবেশ করেন মন্দিরে।

কোচবিহারে রাস উৎসব চলে ১৫ দিন ধরে। দর্শনের জন্য অস্থায়ী মঞ্চে রাখা হয় মদনমোহন ঠাকুরকে। কোচবিহারের রাস উৎসব দর্শন করেতে ভূটান, নেপাল থেকেও পর্যটকরা আসেন। মন্দিরের বাঁ দিকের গেট দিয়ে দু’ভাগে পুলিশি নিরাপত্তার মধ্যে প্রবেশ করতে হয় ভক্তদের। রাস উৎসব ঘিরে মন্দির চত্বরে বসে ধর্মীয় অনুষ্ঠান ও যাত্রাপালা। এই বিরাট আয়োজনের দায়িত্ব সামলায় দেবত্র ট্রাস্ট বোর্ড। মন্দিরের এই উৎসব ঘিরে কাছেই মাঠে বসে মেলা। এই মেলা ও অনুষ্ঠান চলে পনের দিন।