Date : 2019-11-18

ইউরিনের সঙ্গে নির্গত হতো ভাত, মুড়ি! বিরল অস্ত্রোপচারে বিপদমুক্ত রোগী…

বর্ধমান:- প্রস্রাবের সঙ্গে রক্তপাতের রোগে অনেকেই ভোগেন। জটিল কিডনি সমস্যায় এমন অনেক লক্ষণ দেখা যায়। শুনলে অবাক হবেন এই ঘটনা সম্ভবত বিরলতম, দীর্ঘদিন ধরে প্রস্রাবের সঙ্গে বের হয় ভাত, মুড়ি। গল্প মনে হলেও আদপে এটাই সত্যি। আট বছর বয়স থেকে এমন বিরল শারীরিক সমস্যায় আক্রান্ত বর্ধমানের নেড়োদীঘির বাসিন্দা রফিকুল ইসলাম। বাবার মৃত্যুর পর মাকে নিয়ে একাই থাকেন তিনি। শক্তিগড় জুট মিলে শ্রমিকের কাজ করে সামান্য আয়ে দুজনের সংসার চলে কোন মতে। খাওয়ার পর প্রস্রাব করলেই বের হয় গোটা গোটা ভাত, মুড়ি বা অন্যান্য খাবার।

৭ নভেম্বর থেকে পানমশলা, গুটখা বিক্রি নিষিদ্ধ হবে পশ্চিমবঙ্গে

সমস্যা গুরুত্ব না দিয়ে কেটে গেছে ১৫ বছর। রফিকুলের বয়সও বেড়েছে, সমস্যাও ক্রমশ জটিল আকার ধারন করেছে। ইদানিং শারীরিক সমস্যা বাড়তে থাকায় বাধ্য হয়ে চিকিৎসা করাতে শুরু করেন রফিকুল। কিন্তু এই বিরল রোগের কারণ ও চিকিৎসা না জানায় বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি হাসপাতাল থেকে ফিরে আসতে হয়েছে রফিকুলকে। এরপর বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজের ডাক্তার নরেন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায় চিকিৎসা শুরু করেন।

ইউরোগ্রাফিতে ধরা পড়ে অনেকদিন আগেই রফিকুলের খাদ্যনালি ফুটো হয়ে গেছে। ১৯ অক্টোবর বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি করা হয় রফিকুলকে। হাসপাতাল সূত্রে খবর, খাদ্যনালির নিচের অংশ থেকে একটি নালি সৃষ্টি হয়েছে যা কিডনির ইউরেটার পর্যন্ত বিস্তৃত। খাবার পর ওই নালি দিয়েই খাবার চলে আসছে ইউরিন ব্লাডারে। ফলে প্রস্রাবের সঙ্গে নির্গত খাবার। পরিসংখ্যান বলছে, গোটা বিশ্বে গত একশো বছরে এমন বিরল রোগের নিদর্শন মাত্র ১১ জনের শরীরে পাওয়া গেছে।

তবে হাল ছাড়েননি বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজের ডাক্তাররা।মঙ্গলবার বর্ধমানের মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তাঁর অস্ত্রপ্রচার হয়।দশজনের চিকিৎসক দল তাঁর জটিল ও বিরল অস্ত্রোপচারের দায়িত্বে ছিলেন। হাসপাতালের সিনিয়র চিকিৎসক নরেন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায়, মধুসূদন চট্টোপাধ্যায় ও জ্যোতিময় ভট্টাচার্য ছাড়াও তিনজন জুনিয়র ডাক্তার ও চারজন অ্যানাস্থেসিয়া ছিলেন। দু’ঘন্টার অস্ত্রোপ্রচারে সাফল্য মেলে।চিকিৎসকরা বলেন অস্ত্রোপ্রচার সফল হয়েছে। এখন রফিকুল সম্পূর্ণ বিপদমুক্ত। বিরল রোগ থেকে ছেলে মুক্ত হওয়ায় খুশি তার মা ও পরিবার।