Date : 2021-04-15

ভুলেও বেড়াতে যাবেন না এই পাহাড়ে! অজানা আলোয় চিরতরে হারিয়ে যায় মানুষ….

ওয়েব ডেস্ক:- আমেরিকার নর্থ ক্যারোলাইন রাজ্যে একটি শৈলশিরা ব্রাউন মাউন্টেইন। সকালে মনোরম পরিবেশ থাকলেও রাতে বদলে যায় নর্থ ব্রাউন মাউন্টেইন চরিত্র। নির্জন পাহাড়ে রাতের রূপ শান্ত। ঘনকালো আঁধারে মিলিয়ে যায় পাহাড়ের চূড়া। রাতের আকাশে জ্বলে ওঠে অগণিত তারা। তবে ব্রাউন মাউন্টেইন আকাশে আলোর বিন্দু দেখলে তাকে তারা ভাবা ভুল। আলোর বিন্দু গুলির অস্বাভাবিক ভাবে নড়াচড়া দেখলে মনে হবে অভিকর্ষের কোন নিয়মই মানছে না তারা। চোখের পলকে ডান দিক থেকে বাঁ দিকে চলে যায় আলোর বিন্দু। পাহাড় জুড়ে নেচে বেড়ায় আলোর খেলা। আলোর খেলা শুনলে তা দেখার জন্য যে কেউ আকৃষ্ট হবেন। কিন্তু এই আলো যতই সুন্দর ততই ভয়ঙ্কর। পাহাড়ের গায়ে এই আলো দেখা গেলে মানুষ নিখোঁজ হয়ে যায়। সেই মানুষেরা আর কখনও ফিরে আসে না। কিন্তু এই ঘটনার সুত্রপাত কিভাবে? এর উত্তরে স্থানীয় প্রচলিত একটি কাহিনীর কথা শোনা যায়।

কথিত আছে এই নিখোঁজ হওয়ার ঘটনা ঘটে আসছে রেড ইন্ডিয়ান ও আমেরিকায় আগত ঔপনিবেশিকদের সময় থেকে। রেড ইন্ডিয়ানদের সঙ্গে যুদ্ধ হয়েছিল ঔপনিবেশিক শাসকদের। আদিবাসী ইন্ডিয়ান উপকথা অনুযায়ী- ঐ সময়ে ব্রাউন মাউন্টেইনের পাদদেশে চেরোকে আর কাটা’বা ইন্ডিয়ানদের মধ্যে এক রক্তক্ষয়ী যুদ্ধ হয়।

ডিম্বাকার মাথার খুলিযুক্ত মহিলার কঙ্কাল উদ্ধার! এ কি এলিয়ান!

যুদ্ধে দুই পক্ষেরই সৈন্য নিহত হয়। আর ওই আলোগুলো তখন থেকেই দেখা যাচ্ছে। তারা মনে করে, ঐ আলোর বল হলো যুদ্ধে নিহত সৈনিকদের মৃত বিধবা স্ত্রীদের আত্মা। এরা হারিয়ে যাওয়া মানুষদের খুঁজতেই পাহাড়ে ঘুরে বেড়ায়।

তারপর থেকেই নাকি পাহাড়ের আকাশে যখন এই আলোর বিন্দু দেখা যায় তখনই মানুষ নিখোঁজ হয়! পরবর্তীকালে ব্রিটিশ ও স্প্যানিশরা ওই অঞ্চলে এসেও একই ঘটনার সম্মুখীন হয়। বর্তমান সময়ে নিখোঁজের ঘটনা নিয়ে অনেকেরই মত, এই আলোগুলি আসলে সেনাবাহিনীর। মার্কিন সেনাবাহিনী এই স্থান থেকে রাতের অন্ধকারে মানুষকে চুরি করে নিয়ে গিয়ে তাদের অঙ্গ প্রত্যঙ্গ বিক্রি করে দেয়। কেউ কেউ UFO তত্ত্বকে এই আলোর উৎস হিসাবে ব্যাখ্যা করেছেন। আধুনিককালে এই তত্ত্বটি সবচেয়ে বিশ্বাসযোগ্যতা লাভ করেছে।

বিশ্ব উষ্ণায়নে গলে যাচ্ছে হিমবাহ, বেরিয়ে আসছে কাদের মৃতদেহ?

এলিয়েন, আত্মা, মিলিটারি বা কোনো মাফিয়া গ্যাংয়ের কারসাজি নাকি নিছক কোনো প্রাকৃতিক কারণে মানুষ হারিয়ে যায় তা সঠিক করে কেউ বলতে পারে না। প্রত্যেকটি কারণের পক্ষে-বিপক্ষে অনেক মানুষ যুক্তি দেখায়। কিন্তু এত বছর পরও আসল রহস্যের সমাধান হয়নি।নর্থ ক্যারোলিনের ব্রাউন মাউন্টেইনে মানুষ গায়েব হয়ে যাওয়ার কোন সদুত্তোর নেই বিজ্ঞানের কাছে। যে মানুষ রাতের আঁধারে এই পর্বতের কাছে পৌঁছায় এবং ওই আলো দেখতে পায় তারাই চিরদিনের মতো নিখোঁজ হয়ে যায়।