Date : 2020-08-14

এই গ্রামে জন্মের সাতদিন পর দৃষ্টিহীন হয়ে যান গ্রামবাসী ও পশুরা

ওয়েব ডেস্ক: এমন আজব গ্রামের নাম শুনেছেন? যে গ্রামে কোনও মানুষেরই দৃষ্টিশক্তি নেই। শুধু তাই নয়, জন্মের এক সপ্তাহ পরেই তারা নিজের দৃষ্টিশক্তি হারিয়ে ফেলে। লাতিন আমেরিকার বিচিত্র একটি গ্রাম টিলটেপেক। গ্রামটিতে জাপোটেক নামের একটি জাতির বাস। এই জনজাতির প্রায় ৩০০ মানুষ ও তাদের গবাদপশুরা জন্মের সাতদিনের মধ্যে দৃষ্টিশক্তি হারিয়ে ফেলে। তবে আর পাঁচটা সুস্থ সন্তানের মতো এই গ্রামে মানুষের জন্ম হলেও মাত্র দিন পাঁচেকের জন্যই থাকে তাদের দৃষ্টি।

কেন নবজাতক সাতদিনের মধ্যে দৃষ্টিশক্তি হারিয়ে ফেলে আজও সেই নিয়ে অন্ধকারে রয়ে গেছেন বিজ্ঞানীরা। কারণ অনুসন্ধানে গঠন করা হয়েছে তদন্ত কমিটি। অনুসন্ধানে চাঞ্চল্যকর তথ্য এসেছে গবেষকদের হাতে। যে ঘন অরণ্য গ্রামটিকে ঘিরে রেখেছে সেখানে বসবাস রয়েছে ‘ব্ল্যাক ফ্লাই’ নামের এক প্রজাতির বিষাক্ত মাছি। টিলটেপেক গ্রামে এই মাছির অবাধ বিচরণ রয়েছে।

কেমন যাবে ২০২০, একনজরে দেখে নিন আপনার রাশিফল

মিশরে রয়েছে পিরামিডের থেকেও ভয়ানক একটি হিন্দু মন্দির!

এই বিষাক্ত মাছির কামড়ে জীবাণু শরীরে ছড়িয়ে পড়ে। যার ফলেই শিশু থেকে বুড়ো এবং পশুরাও ধীরে ধীরে দৃষ্টিশক্তি হারিয়ে ফেলে। তদন্ত কমিটির রিপোর্টে এমন চাঞ্চল্যকর তথ্যে রীতিমতো চিন্তায় পড়ে গেছেন প্রশাসন। ইতিমধ্যেই গ্রামবাসীদের অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যাওয়া শুরু হয়েছে। টিলটেপেক গ্রামকে আপাতত মানুষের বসবাসের অযোগ্য বলে ঘোষণা করেছে প্রশাসন। গ্রামের বাইরে অবশ্য এই বিশেষ ধরনের মাছির কোনও অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি। কিভাবে গ্রামে এই মাছির উৎপাত তা নিয়েও ধন্দে রয়েছেন বিজ্ঞানীরা।