Date : 2020-02-22

বাঘের থাবা থেকেও বেঁচে গেল যুবক! কিন্তু কিভাবে! দেখুন ভাইরাল ভিডিও…..

ওয়েব ডেস্ক: ছোটবেলার গল্পের বইয়ের দুই বন্ধুর ভাল্লুকের মুখোমুখি হওয়ার গল্পটা নিশ্চয়ই সবার জানা। প্রাণ বাঁচাতে এক বন্ধু গাছে উঠে গেলেও অন্যজন ভাল্লুকের সামনে মৃতদেহের মতো পড়েছিল। এবার সেই গল্পের থেকে শিক্ষা নিয়ে অল্পের জন্য প্রাণে বাঁচলেন এক যুবক। আইএফএস অফিসার পারভিন কাসওয়ান সম্প্রতি একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন। ভিডিওটি শেয়ার করে তিনি ক্যাপশনে লেখেন, “আপনি দেখতে চান, একটি বাঘের সঙ্গে সংঘর্ষে নিঃশব্দে কিভাবে পালিয়ে যাওয়া যায়। বাঘটি মানুষের দ্বারা আক্রান্ত হয়েছিল। কিন্তু শেষটা যদিও দুজনের জন্যই ভালো হয়েছিল।” ৩০ সেকেন্ডের ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, মহারাষ্ট্রের ভান্ডারা জেলায় তুমসির গ্রামে শনিবার দিনে-দুপুরে বাঘ হানা দেয়। বাঘের আতঙ্কে হৈচৈ পড়ে যায় গ্রামে।

লাঠি, বাঁশ নিয়ে বাঘটিকে আক্রমণ করেন গ্রামবাসীরা। সাধারণ মানুষ জমায়েত হতে শুরু করলে, তা দেখে বাঘ মামা নিজেই কোথায় পালাবে তা বুঝে উঠতে পারছিল না। আর সেই ভিডিও ভাইরাল হতে খুব বেশি সময় নেয়নি। রাস্তার দু-ধারের বিস্তীর্ন গ্রামে কোথায় পালাবে বাঘ মামা তা ঠিক করে উঠতে পাচ্ছিল না।

অমর জওয়ান জ্যোতিতে নয়, ওয়ার মেমোরিয়ালে সাধারণতন্ত্র দিবস উদযাপন প্রধানমন্ত্রীর

চারদিকে লোক দেখে দিশাহার বাঘ এরই মধ্যে এক মুহূর্তে থাবা বসিয়ে দেয় এক যুবকের বুকের উপর। নিজেকে বাঘের হাত থেকে বাঁচাতে মৃতদেহের মতো পড়ে ছিলেন ওই যুবক। মানুষের আক্রমণের মুখে পড়েও নিজের শিকার ছাড়তে নারাজ দক্ষিণরায়। তবে শেষ পর্যন্ত মানব শক্তির কাছে হার শিকার করে, নিজের শিকার ফেলে রেখেই ক্ষেত্রের দিকে ছুটে যায় বাঘটি। তবে অকস্মাৎ বাঘের এমন হামলার জন্য আহত হয় তিনজন গ্রামবাসী। আহত অবস্থায় চিকিৎসার জন্য তাদের কাছাকাছি একটা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এর আগে, মধ্যপ্রদেশের সিভনি একটি কুকুর বাঘের হাত থেকে এক যুবককে রক্ষা করে।