Date : 2021-10-22

স্নান যাত্রায় জগতের নাথ

ওয়েব ডেস্ক : দেশজুড়ে টিকাকরণ শুরু হলেও আছড়ে পড়েছে মারণ ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ। গতবছর করোনার প্রথম ঢেউয়ের কারণে ভক্তদের ছাড়াই সম্পন্ন হয়েছিল পুরীর জগন্নাথ দেবের স্নানযাত্রা। বছর ঘুরলেও সেই একই পদ্ধতিতে করোনাবিধি মেনেই পালিত হল জগন্নাথের স্নানযাত্রা অনুষ্ঠান।

করোনা আবহে পুরীতে পালিত হল জগন্নাথ দেবের স্নান যাত্রা। গত বছর করোনার সংক্রমণ রোধে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে দর্শনার্থী ও ভক্তদের ছাড়াই পালিত হয়েছিল এই স্নান যাত্রা। এবারেও করোনা আবহে সেই নিয়ম বহাল রেখেই পালিত হয় এই অনুষ্ঠান। শুধুমাত্র সেবাইতদের উপস্থিতিতেই পালিত হয় এই অনুষ্ঠান। তবে যে সেবাইতরা এই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করবেন তাদের ভ্যাকসিনের দুটি ডোজ নেওয়া বাধ্যতামূলক এবং তাদের করোনা রিপোর্টও হতে হবে নেগেটিভ। এই নিয়ম মেনে চলার নির্দেশ ছিল মন্দির কর্তৃপক্ষের তরফে। পাশাপাশি মন্দির চত্বরে জারি 144 ধারা। যাতে মন্দির চত্বরে কেউ ভিড় না করেন সেই কারনেই এই সিদ্ধান্ত পুরী প্রশাসনের। এক নজরে দেখে নেওয়া যাক এই স্নান যাত্রার ইতিহাস।

জগন্নাথ দেবের স্নানযাত্রা

জ্যৈষ্ঠ মাসের পূর্ণিমা তিথিতে মনুর যজ্ঞে আবির্ভূত হয়েছিলেন প্রভু জগন্নাথ।এই পূণ্যতিথিকে জগন্নাথদেবের জন্মদিন হিসেবে পালন করার নির্দেশ দেন মনু ।সেই জন্মদিন উপলক্ষে এই দিনটি স্নান উৎসব হিসাবে পালিত হয়ে আসছে।প্রচলিত রীতি অনুযায়ী, জ্যৈষ্ঠ মাসের প্রথম পূর্ণিমাতেই জগন্নাথ দেবের স্নানযাত্রা হয়।এদিন গর্ভগৃহ থেকে মূর্তি তুলে এনে স্নান মণ্ডপে স্থাপন করা হয়।সেখানেই সুগন্ধি জল দিয়ে স্নান করানো হয় জগন্নাথ,বলরাম,সুভদ্রাকে।স্নানের পাশাপাশি চলে মূর্তির সাজসজ্জা-অলঙ্করণ ইত্যাদি।108 ঘড়া জলে স্নানের পরেই জ্বরে কাবু হয়ে পড়েন জগন্নাথদেব।তাই এইসময় গৃহবন্দি অবস্থায় থাকেন তিনি।রথ পর্যন্ত বিশ্রাম নেন প্রভু জগন্নাথ।তাই এইসময় ভক্তরা জগন্নাথ দেবের দর্শন পান না।এই কয়েকদিন পুজোও হয় না তাঁর।রথযাত্রার দিন রাজবেশে রথে করে তিনি যান মাসির বাড়িতে।এবার রথযাত্রা 12 জুলাই।

অন্যদিকে নদিয়ার মায়াপুরের ইস্কন মন্দিরেও হল স্নানযাত্রা। অনুষ্ঠান করোনা বিধি মেনেই কিছুদিন আগে এই ইস্কন মন্দির খোলা হয়েছিল। বৃহস্পতিবার করোনা বিধি মেনেই সেবাইতদের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত হয় এই স্নানযাত্রা অনুষ্ঠান। দূরদুরান্ত থেকে মানুষ আসেন এই স্নান যাত্রা অনুষ্ঠান দেখতে। কোভিড বিধি মেনেই দুর্গাপুর ইস্কন মন্দিরে শুরু স্নান যাত্রা উৎসব। ভক্তদের আবেগকে গুরুত্ব দিয়েই মন্দির চত্বরে ঘুরবে রথের চাকা। নিয়ম মেনেই তা দর্শন করতে পারবেন দর্শনার্থীরা।পাশাপাশি হুগলীর মাহেশের জগন্নাথ মন্দিরেও করোনাবিধি মেনেই গর্ভগৃহে পালিত হয় এই অনুষ্ঠান।বীরভূমের দুবরাজপুরের গৌরীয় মঠে অনুষ্ঠিত হয় এই স্নানযাত্রা অনুষ্ঠান। তবে ভক্তসমাগম ছাড়াই এই অনুষ্ঠান পালিত হয়।

প্রতিবছর বহু মানুষের সমাগম হয় এই অনুষ্ঠানে। কিন্তু করোনা আবহে গতবারের মতো এবছরও এই দিনটি পালিত হল অনাড়ম্বর ভাবেই। ভক্তদের আশা পরের বছর হয়তো এই দিনটিতে তারা প্রভু জগন্নাথের জগতের নাথের দর্শন পাবেন।