Date : 2021-09-18

পিরিয়ড লিভের দাবিতে শিক্ষিকারা

ভালো নয় রাজ্যের স্কুলের বাথরুমের অবস্থা। বিশেষত খারাপ পরিস্থিত হয় ঋতুস্রাব চলাকালীন। তাই এই সময় তিন দিনের ছুটির দাবি করলেন উত্তরপ্রদেশের শিক্ষিকারা। যোগীরাজ্যে নতুন করে গঠিত শিক্ষিকাদের এক সংগঠনের তরফে এই দাবি জানানো হয়েছে। ইতিমধ্যেই মন্ত্রীদের কাছে সেই দাবি পৌঁছেও দেওয়া হয়েছে। জন প্রতিনিধিদের সঙ্গেও দেখা করছেন শিক্ষিকারা। বুঝিয়ে বলার চেষ্টা করা হচ্ছে, কেন এই ছুটি চাইছেন তাঁরা। এই সংগঠনের শিক্ষিকাদের দাবি উত্তরপ্রদেশের স্কুলগুলির বাথরুমের অবস্থা শোচনীয়।

অন্যান্য ছাত্র ছাত্রীদের সাথেই তাদের তা ব্যবহার করতে হয়। সমস্যায় পড়তে হয় তাদের। এই কারনে অনেকসময় তারা এড়িয়ে গেলে মূত্রনালি সংক্রমণে ভুগতে হয়।সেই সংক্রমণ এড়াতে তারা মাঠ বা খোলা জায়গা এমনকি সেই নোংরা বাথরুমটাই ব্যবহার করতে বাধ্য হন। কারণ এই শিক্ষিকাদের প্রত্যেকেই আসেন প্রায় ৩০ থেকে ৪০ কিমি দূর থেকে। তাদের এই সমস্যাটা সবচেয়ে বেশী হয় ঋতুস্রাব চলাকালীন।

তাই এই বিশেষ কারণে তাদের পিরিয়ড লিভের দাবি করেন সংগঠনের শিক্ষিকারা। ৬ মাস আগে গঠিত হয়েছে এই সংগঠন। ৭৫টি জেলার মধ্যে ৫০টি জেলাতেই তাদের অস্তিত্ব রয়েছে।উত্তরপ্রদেশের প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলিতে ৭০ শতাংশ শিক্ষিকা থাকলেও অন্যান্য সংগঠনগুলিতে পুরুষদেরই প্রাধান্য থাকে। তাঁরা এই ধরনের ইস্যুকে গুরুত্ব দেন না বলেই জানিয়েছেন সুলোচনা। আর সেই কারণেই এই নতুন সংগঠনের সূচনা।যদিও যোগী প্রশাসনের দাবি, ৯৫.৯ শতাংশ স্কুলেই ছেলে ও মেয়েদের আলাদা বাথরুম রয়েছে।কিন্তু সেগুলি পরিস্কার নয় বলে দাবি শিক্ষিকাদের। তাই ওই বিশেষ সময় তাদের লিভ বা ছুটির প্রয়োজন বলে দাবি করেন সংগঠনের শিক্ষিকারা।