Date : 2021-11-27

মুম্বইয়ের বহুতলে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, হাত ফসকে নীচে পড়লেন এক ব্যক্তি

মাম্পি রায়, নিউজ ডেস্ক : ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের সাক্ষী থাকল মুম্বইয়ের একটি বহুতল। শুক্রবার দুপুরে দক্ষিণ মুম্বইয়ে কারি রোডের অবিঘ্না অ্যাপার্টমেন্টে আগুন লাগে। ৬০ তলা বিল্ডিংয়ের ১৭ তলা থেকে আগুন ছড়িয়ে পড়ে ২৫ তলা পর্যন্ত। আগুনের লেলিহান শিখার গ্রাসে চলে যায় সমস্তকিছু। দিশেহারা হয়ে পড়েন বাসিন্দারা। দমকল বিভাগের কর্মীরা সেখানে তড়িঘড়ি পৌঁছনোর চেষ্টা করলেও বেশ বেগ পেতে হয় তাঁদের। কালো ধোঁয়ায় ঢেকে যায় চারপাশের এলাকা। ধোঁয়ার জেরে অসুস্থ হয়ে পড়েন অনেকে। আগুন নেভাতে দমকলের একের পর এক ইঞ্জিন ছুটে যায় ঘটনাস্থলে। যুদ্ধকালীন তৎপরতায় চলতে থাকে আগুন নেভানোর কাজ। মোট ৩০টি ইঞ্জিনের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। বহুতল থেকে মোট ২৬ জনকে উদ্ধার করেন দমকল কর্মীরা। এরইমধ্যে আগুনের গ্রাস থেকে বাঁচতে চেয়েছিলেন বছর তিরিশের যুবক। সেজন্য ১৯তলা থেকে ঝাঁপ দেন তিনি। কার্নিশ বেয়ে নীচে নামতে চেয়েছিলেন। কিন্তু শেষরক্ষা হল না। জীবনরক্ষার সেই ঝাঁপই তাঁর মরণঝাঁপ হয়ে গেল। হাত ফসকে বহুতল থেকে নীচে পড়ে গেলেন তিনি। রক্তাক্ত অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। ওই ব্যক্তিকে চিহ্নিত করা হয়েছে। তাঁর নাম অরুণ তিওয়ারি।

ভয়াবহ আগুনের ভিডিওগুলি ঘোরাফেরা করতে থাকে সোশ্যাল মিডিয়ায়। এরইমধ্যে নিমেষে ভাইরাল হয়ে যায় ওই যুবকের ঝাঁপ দেওয়ার দৃশ্যটি। ভিডিওটি দেখে শিউড়ে উঠছেন নেটিজেনরা।

ঘটনার তদন্তে নেমেছে বিএমসি। ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়েছেন মুম্বইয়ের মেয়র কিশোরী পেদনেকর। তিনি বলেন, নিরাপত্তারক্ষীরা চাইলে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করতে পারতেন। ১৫ মিনিট সময় ছিল তাঁদের হাতে। ওই সময়ের মধ্যে বহুতলের নীচে চাদর পেতে ওই ব্যক্তিকে ধরলে প্রাণে বাঁচানো যেত তাঁকে, জানান মুম্বইয়ের মেয়র কিশোরী পেদনেকর।