Date : 2021-10-22

First Edible Saree : খাওয়া যাবে এমন শাড়ি বানিয়ে চমক শিল্পীর

পৌষালী সেনগুপ্ত, নিউজ ডেস্ক : শাড়ি ভারত, বাংলাদেশ সহ ভারতীয় উপমহাদেশের নারীদের ঐতিহ্যবাহী ও নিত্যনৈমিত্তিক পরিধেয় বস্ত্র।শাড়ি বাঙালির ঐতিহ্যবাহী পোশাক।এই পোশাকে রয়েছে সৌন্দর্য। বিভিন্ন অনুষ্ঠানে শাড়িকে নারীদের মূল পোশাক হিসাবেও বিবেচনা করা হয়। রাস্তায় পরে বেরিয়ে যদি খিদে পেয়ে যায় তাহলে খিদে কমাতে পারে আপনার পরনের শাড়ি। পড়েই অবাক হলেন। অবাক হবেন না।এমনই শাড়ি তৈরি করে সকলকে অবাক করে দিয়েছেন কেরলের শিল্পী আনা এলিজাবেথ জর্জ। তাঁর তৈরি করা শাড়ি পরা তো যাবেই। আবার তা খেয়ে পেট ভরানোও সম্ভব।শাড়িটি সাড়ে পাঁচ মিটারের। ১০০ টি স্টার্চের ওয়েফার কাগজ জোড়া লাগিয়ে কাসাভু ডিজাইনের শাড়িটি তৈরী করেছেন তিনি। কেরলেই ‘কাসাভু’ ডিজাইনের শাড়ি সাধারণত তৈরি হয়। একদিন তাঁর মায়ের ‘কাসাভু’ ডিজাইনের শাড়ি দেখেন আনা। তারপরই এমন ডিজাইনের শাড়ি তৈরির কথা মাথায় আসে তাঁর।এই অভিনব শাড়ি তৈরী ইচ্ছা হয় একটি রুমাল দেখে।

ছোটবেলায় তিনি একজনকে এই রুমাল তৈরী করতে দেখেছিলেন।তা দেখেই তাঁর মনে ইচ্ছা হয়। সেই ইচ্ছাপূরণই হল ওনাম উৎসবের সময়। নিজেই সেই শাড়ি তৈরী করে ইন্স্টাগ্রামে শেয়ার করলেন সেই ভিডিও। যা পোস্ট হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে রীতিমতো ভাইরাল। তবে এই শাড়ি আপাতত নিজের জন্যই বানিয়েছেন তিনি। অন্যরা আদৌ এই অভিনব শাড়ি পাবেন কি করে বা পাবেন কিনা সেই বিষয় কোনো কিছুই উল্লেখ করেননি শিল্পী।তবে অনেকের মনেই আবার এই প্রশ্ন তৈরী হয়েছে যে এই শাড়ি পরে বেরিয়ে তো সেই শাড়িই খাওয়া যাবে না।আবার সঙ্গে করে খাওয়ার মতো শাড়ি নিয়ে বেরোনোর থেকে খাওয়ার সঙ্গে করে নিয়ে বেরোলেই তো বুদ্ধিমানের কাজ। তবে অভিনব এই ধরণের শাড়ি আবিস্কারের প্রচেষ্টাকে এককথায় সাধুবাদ জানিয়েছেন সকলেই।