Date : 2021-11-27

ইন্দ্রাণীর “চক’ দে ইন্ডিয়া

শাহিনা ইয়াসমিন, রিপোর্টার : রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর থেকে দেবী দুর্গার প্রতিমা ভারতের মানচিত্র থেকে অশোকস্তম্ভ। চকের গায়ে এই ধরণের শিল্পকর্ম করে ২০২১ ইন্ডিয়া বুক অফ রেকর্ডসে নাম তুলেছেন ইন্দ্রাণী সরকার। তার স্বপ্ন গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে নাম তোলার।
নাম ইন্দ্রাণী সরকার। বয়স ২১ বছর। তাঁর নাম উঠেছে ইন্ডিয়া বুক অফ রেকর্ডসে। চকের মধ্যে শিল্পকর্ম করে ইন্দ্রাণী। এটা তার হবি। ভারতের মানচিত্র, দুর্গা ও কালি প্রতিমা, জগন্নাথ দেব, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর- একের পর এক শিল্পকর্ম তার হাতে করা। চকের গায়ে শিল্পকর্ম করেই ২০২১ ইন্ডিয়া বুক অফ রেকর্ডসে নাম উঠেছে ইন্দ্রাণীর। সঙ্গে পেয়েছেন সার্টিফিকেট, ব্যাচ, পেন। বিনা প্রশিক্ষণেই সাফল্য পেয়েছেন ইন্দ্রাণী। পর্যবেক্ষণ ক্ষমতা সব থেকে বড় শক্তি ইন্দ্রাণীর। যা দেখে সে, তা হুবহু করার চেষ্টা করে। সাফল্যও পায়। একদিন খেলার ছলে চকের গায়ে খোদাই করতে গিয়ে তৈরি করে ফেলে মানুষের কাঠামো। এইভাবেই 2021 ইন্ডিয়া বুক অফ রেকর্ডসে নাম উঠে যায় ইন্দ্রাণীর।


এখানেই শেষ নয় ইন্দ্রাণীর। বিএসসি মেডিকেল ল্যাব টেকনোলজি নিয়ে পড়াশোনার পাশাপাশি নাচ শেখে সে। ভালো লাগা থেকেই আঁকা। ফেলে দেওয়া জিনিসের ওপর আকাঁ তার শখ। ইন্দ্রাণীর জীবনের লক্ষ্য চকের মধ্যে শিল্পকর্ম করে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে নাম তোলার।
ঘরের একটি আলমারি ভর্তি খালি মেডেল ও সার্টিফিকেটে। আঁকা ও নাচের প্রতিযোগিতা যেখানেই হোক না কেন সেখানে ছুটে যান ইন্দ্রাণী। ইন্দ্রাণীর বাবা অটো চালক। মা গৃহিনী। তার এই সাফল্যের পিছনে রয়েছে তার পরিবার। ইন্দ্রাণী যে কোনও কাজের পাশে পেয়েছে তার বাবা ও মাকে।
চোখে অদম্য স্বপ্ন। কিছু করার। “পারবে না” এমন কোনও শব্দ নেই ইন্দ্রাণীর অভিধানে। পারতে তাকে হবেই। তাইতো লাগাতার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে সে নিজের লক্ষ্যে পৌঁছতে।