Date : 2021-11-27

সুপ্রিম স্বস্তি তৃণমূল কংগ্রেসের।রাজনৈতিক প্রচার করার অধিকার সকলের: শীর্ষ আদালত

ষষ্ঠী চট্টোপাধ্যায়, রিপোর্টার: পুর ভোটের আগে সুপ্রিম স্বস্তি তৃণমূল কংগ্রেসের।হলফনামা তলব ত্রিপুরার মুখ্যসচিব এবং রাজ্য পুলিশের ডিজি র।
বৃহস্পতিবার তৃণমূল রাজ্য সভার সংসদ সুস্মিতা দেবের করা মামলায় নজিরবিহীন রায় শীর্ষ আদালতের।
সুপ্রিম কোর্টের ভৎসনা র মুখে ত্রিপুরা সরকার। ভোটের আগে সমস্ত রাজনৈতিক দলকে নিরাপদে প্রচার করতে দিতে হবে। যথাযথ নিরাপত্তা দিতে হবে প্রার্থীদের। নির্বাচনও যাতে অবাধ, সুষ্ঠুভাবে হয়, সেই দায়িত্বও বিপ্লব দেব সরকারেরই। ত্রিপুরায় রাজনৈতিক হিংসা নিয়ে তৃণমূলের দায়ের করা একটি মামলার পরিপ্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার এমনই জানিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্ট। পাশাপাশি ত্রিপুরার স্বরাষ্ট্রসচিব ও রাজ্যে পুলিশের ডিজিকে শীর্ষ আদালতের এই অন্তর্বর্তী নির্দেশ যথাযথভাবে পালন হচ্ছে কি না, তা নজরদারির পর সুপ্রিম কোর্টে রিপোর্ট পেশ করতে হবে।

গত ২২শে অক্টোবর তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য সভার সাংসদ সুস্মিতা দেবের ওপর ত্রিপুরায় বিজেপি আক্রমণের ঘটনায় শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন তিনি।
সম্প্রতি ত্রিপুরায় রাজনৈতিক মাটি শক্ত করতে ঝাঁপিয়ে পড়েছে তৃণমূল । প্রায়শয়ই সেখানে ঘাসফুল শিবিরের একাধিক কর্মসূচি চলছে। তবে অভিযোগ, তৃণমূলের সমস্ত রাজনৈতিক কর্মসূচিতেই বাধা দিচ্ছে শাসকদল বিজেপি । তাই পথে নেমে বারবারই আক্রান্ত হচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলের নেতা, কর্মীরা। চলতি পুরভোটের আগে ত্রিপুরায় ক্রমশ বাড়ছে হিংসা। বুধবার ভোর রাতে ফের তৃণমূল প্রার্থীর বাড়িতে হামলার অভিযোগ ওঠে বিজেপির বিরুদ্ধে। তারই প্রতিবাদে এদিন সকাল থেকেই আগরতলায় ত্রিপুরা পুলিশের সদর দপ্তরের সামনে ধরনায় বসেন ত্রিপুরা তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্ব। তাতে শামিল উপস্থিত সুস্মিতা দেব, সুবল ভৌমিকরা।
এসব ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বিপ্লব দেব সরকারকে কাঠগড়ায় তুলে শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হয় তৃণমূল। রিট পিটিশন দাখিল করে তৃণমূলের রাজ্যসভা সাংসদ সুস্মিতা দেব
অভিযোগ করেন, রাজনৈতিক প্রচারে নেমে তৃণমূলের নেতা, কর্মী, সদস্যরা হিংসার শিকার হচ্ছেন। তৃণমূলের কার্যালয়, গাড়ি, ভাঙচুরের মতো হিংসার ঘটনা নিত্যদিনের ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই মামলায় সমস্ত অভিযোগ খতিয়ে দেখতে অবসরপ্রাপ্ত এক বিচারপতির নেতৃত্বে একটি বিশেষ তদন্তকারী দল গঠনেরও আরজিও জানান সুস্মিতা দেব।তাঁর দায়ের করা মামলার ভিত্তিতেই বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্ট অন্তর্বর্তীকালীন রায়ে তিন বিচারপতির বেঞ্চ জানায়, ত্রিপুরায় ভোটের প্রক্রিয়া যখন শুরু হয়ে গিয়েছে, তখন সমস্ত রাজনৈতিক দলেরই প্রচার চালানোর অধিকার রয়েছেন। সুস্মিতা দেব-সহ অন্যান্য রাজনৈতিক দলের প্রচারকদের নিরাপত্তার জন্য যথাযথ পদক্ষেপ করতে হবে রাজ্য সরকারকে। পাশাপাশি ত্রিপুরার স্বরাষ্ট্রসচিব ও ডিজিপি-কে যে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে তা যথাযথ পালন করা হয়েছে কিনা তা দু সপ্তাহের মধ্যে হলফনামা আকারে আদালতকে জমা দিতে হবে।