Date : 2022-05-25

“আপনি কি শারিরীক ও মানসিক ভাবে সুস্থ আছেন?”কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়কে প্রশ্ন বিচারপতির

ষষ্ঠী চট্টোপাধ্যায়, রিপোর্টার : বর্তমানে রাজনীতির বিতর্কের আর এক নাম কি কল্যাণ !হাই কোর্টের মামলা চলাকালীন কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের আবেগ ফের বিতর্ক একবার উস্কে দিলেন স্বয়ং কল্যাণ বাবু।রাজ্যের পাইলট প্রোজেক্ট “দুয়ারে রেশন” নিয়ে বেশ কিছু ডিলার কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন।শুক্রবার সেই মামলা শুনানি শুরু হয় বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্যের এজলাসে।করোনা অতিমারীতে কিছু সংখ্যক আইনজীবী এজলাসে সে সময় উপস্থিত এবং কিছু মামলাকারিও হটাৎ সাংসদ তথা আইনজীবী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্দেশ্য বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্যের প্রশ্ন “আপনি কি শারিরীক ও মানসিক ভাবে সুস্থ আছেন?”
সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক তথা ডায়মন্ডহারবারের সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাথে বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন শ্রীরামপুরের সাংসদ তথা কলকাতা হাই কোর্টের আইনজীবী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। যার জেরে গত বেশ কয়েকদিন ধরে সংবাদ মাধ্যমের শিরোনামে উঠে আসে কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। হুগলির পর কলকাতা হাই কোর্টের আইনজীবীরা কল্যাণ বাবুর বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেন।

শুক্রবার মামলা চলাকালীন হাইকোর্টে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন কল্যান বন্দ্যোপাধ্যায়। মামলা চলাকালীন আবেগপ্রবণ হয়ে পরেন তিনি। রেশন ডিলারের একটি মামলায় এদিন বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্যের মামলার শেষে কল্যানবাবুকে জিজ্ঞেস করেন, ‘ আপনি কি শারিরীক ও মানসিক ভাবে সুস্থ আছেন? কল্যান বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, আপাতত তিনি শারিরীক ভাবে সুস্থ আর মানসিকভাবে এলার্ট আছেন। পুরনো স্মৃতিতে ফিরে গিয়ে কল্যান বলেন, জীবনে অনেক কঠিন পরিস্থিতিতে পরেছেন। ভিখারী পাসোয়ান মামলায় তার ছেলেকে কিডন্যাপ করার হুমকির মুখে পরতে হয়েছিল। কিন্তু তিনি দমেন নি। তার পরেও বিভিন্ন সময়ে সমস্যার মুখে পড়েছেন কিন্তু অবিচল ছিলেন। অতি সম্প্রতি তার বিরুদ্ধে হাইকোর্টের তৃণমূলপন্থী আইনজীবীদের একাংশ বিক্ষোভ দেখান। সেই প্রসঙ্গ সরাসরি না টেনে কল্যানবাবু জানিয়ে দেন তার জুনিয়ররা প্রায় সকলে আজ বিচারপতি। প্রাক্তন এজি কিশোর দত্তের নাম না করে বলেন তার জুনিয়র একজন এডভোকেট জেনারেল হয়েছিলেন। তাই সবার ভালোবাসায় তিনি ভবিষ্যতেও এগিয়ে যাবেন। সরাসরি না বললেও অভিষেকের তরজায় ঠারেঠোরে আবার কল্যান বুঝিয়ে দিলেন তিনি দমবেন না।
তৃণমূল কংগ্রেসে বিতর্কের ইতি টানলেও কল্যাণ বাবু নিজের অবস্থানেই অনড়।