Date : 2022-05-27

শাসক, বিরোধী লড়াই এখন ইঞ্চিতে ইঞ্চিতে।বরাহনগর পৌরসভা নির্বাচনে শেষ হাসি কে হাসবেন তা স্থির করে ফেলেছেন এলাকার ভোটার।এখন শুধু ফল বেরোনোর অপেক্ষায়

ষষ্ঠী চট্টোপাধ্যায়, রিপোর্টার:- রাজ্যের১০৮টি পুরসভা’র নির্বাচন চলতি মাসের ২৭তারিখে।তবে নির্বাচনে গণনা কবে হবে তা নিয়ে তৈরি হয়েছিল ধোঁয়াশা। বিরোধী দলগুলি তাঁরা বার বার দাবি তুলেছে কখনো নির্বাচন কমিশনের চেয়ারম্যানের কাছে আবার দাবি জানিয়েছেন রাজ্যের শীর্ষ আদালতে।তবে সকলের প্রশ্নের জবাবে কমিশন বুধবার জানিয়েছেন আগামী ২রা মার্চ সব পুরসভা র গণনা একসাথেই হচ্ছে।
খানিকটা রেশ কেটেছে করোনা অতিমারীর দাপটে।
রাজ্যের ১০৮টি পুরসভা নির্বাচনে দিন আগেই ঘোষণা হয়েছে, মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়ার পর্ব শেষ।এবার পুরদমে প্রচারে নেমে পড়েছেন ডান, বাম সমস্ত রাজনৈতিক দলের প্রার্থীরা।
বুধবার বরাহনগর পুরসভা ২০ নম্বর ওয়ার্ডের সর্বভারতীয় তৃনমূল কংগ্রেসের প্রার্থী নিতাই সাহা এবং ২১নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী দিলীপ নারায়ণ বসুর সমর্থনে একটি বিশাল মিছিলের আয়োজন করা হয়েছিল।মিছিলে বরাহনগর বিধানসভা বিধায়ক তথা রাজ্য বিধানসভার ডেপুটি হুইপ তাপস রায় মিছিল থেকেই দলীয় প্রার্থীদের জন্য এলাকার মানুষের কাছে ভোট প্রার্থনা করেন।ওয়ার্ড গুলির বিভিন্ন এলাকায় পরিক্রম করে।বিধায়ক তাপস রায় জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত।বিরোধীদের ভোট ময়দানে দেখতে পাওয়া যাচ্ছে না।তাঁদের দুটি জায়গায় রাজ্যের মানুষ দেখতে পাচ্ছেন এক কলকাতা হাইকোর্টে এবং দ্বিতীয় রাজ্য নির্বাচন কমিশনের দফতরে।এই মধ্যেই বহু পুরসভা য় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন তৃনমূল কংগ্রেসের প্রার্থীরা।যেখানে বিরোধীদের দেখতে পাওয়া না গেলেও বরাহ নগর পুরসভার সব আসনেই তাঁরা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।এই পুরসভা দেখে অন্য পুরসভার বিরোধীদের অবশ্যই মুখ বন্ধ হয়ে যাবে কারণ তাঁরা বলছেন বিরোধী দলের প্রার্থী দিতে পাচ্ছেন না।
২০ নম্বর ওয়ার্ডের তৃনমূল কংগ্রেস নবাগত প্রার্থী নিতাই সাহা জানিয়েছেন তিনি জিতে এসে এলাকার পৌর পরিষেবা মানুষের বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দেবেন পাশাপাশি এলাকার পানীয় জলের সমস্যা ও ভেঙে পড়া নিকাশি ব্যবস্থায় জোড় দেবেন। যদিও ২১নম্বর ওয়ার্ডের তৃনমূল কংগ্রেস প্রার্থী দিলীপ নারায়ণ বসু তিনি দু বারের পৌর প্রতিনিধি হিসেবে এলাকার মানুষের কাছে পৌর পরিষেবার দেওয়ার কোন খামতি রাখেননি।২০নম্বর ওয়ার্ডের বামফ্রন্ট মনোনীত আর এস পি প্রার্থী সঞ্জয় দাস জানিয়েছেন এলাকায় পানীয় জলের খুব সমস্যা, নিকাশি ব্যবস্থা হাল খুবই খারাপ। তাই এলাকার মানুষ তাঁকে আশীর্বাদ করলে সমস্যা গুলির সমাধান করবেন।
এলাকাবাসী আশা প্রত্যাশা পূরণ করার জন্য কাকে বেছে নেবেন তা আগামী ২রা মার্চ জনসমক্ষে স্পষ্ট হয়ে যাবে।