Date : 2022-10-06

কিমের দেশে আজব শাস্তি

তথাগত চ্যাটার্জি, নিউজ ডেস্ক : কিমের দেশে ফের আজব শাস্তি। উত্তর কোরিয়ায় এক আশ্চর্য কারণের জন্য বাগানের মালিকে শাস্তির নির্দেশ দিলেন সে দেশের রাষ্ট্রনায়ক। কী ঘটেছিল পুরো ঘটনাটি। ১৬ ফেব্রুয়ারি কিম জং উনের বাবার জন্মশতবার্ষিকী ছিল। সেই দিনটিকে মনে রেখে একটি বিশেষ ফুল ফোটাতে তাঁর বাগানের মালিদের আগাম নির্দেশ দিয়েছিলেন তিনি। তিনি ওই ফুলের নাম দিয়েছিলেন কিম জংলিয়া বোগানিয়া। তবে বিপত্তি ঘটে এখানেই। সূত্রের খবর, তাঁর গ্রিন হাউসের প্রধান কর্মীকে কিম তলব করেছিলেন ফুল নিয়ে আসার জন্য। কিন্তু বাগানের মালি ঠিক সময়ের মধ্যে তিনি ফুল নিয়ে যেতে পারেন নি। এরপরে কী শাস্তি দিলেন কিম তাঁকে। জানা গিয়েছে, সঠিক সময়ে কেন ফুল ফুটল না তা নিয়ে রেগে ওঠেন কিম। শাস্তি হিসেবে ওই বাগানের প্রধান কর্মীকে ছ-মাসের জন্য কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন। ওই ফুলটি দিয়ে কিম জং উন তাঁর বাবার মৃত্যুদিবস পালন করতে চেয়েছিলেন। উত্তর কোরিয়ায় স্বৈরাচারী শাসনের জন্য বরাবরই সমালোচনার শীর্ষে রয়েছেন কিম জং উন। জানা গিয়েছে, কিমের বাগানের ওই ফুলটির একটি প্রধান বিশেষত্ব রয়েছে। কিমের রাজরোষ থেকে বাদ পড়েন নি ওই বাগানের প্রধান কর্মী ও তাঁর অধীনস্থ মালিরাও।

কিমের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ রয়েছে উত্তর কোরিয়া-সহ গোটা বিশ্বে। দিন কয়েক আগেই তাঁর রোগা চেহারার ছবি ভাইরাল হয়ে গিয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। কানাঘুষো শোনা যায় তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটে। এও শোনা গিয়েছিল তাঁকে প্রাণে মেরে ফেলার চক্রান্ত করছে তাঁর শত্রুরা। এছাড়াও বিভিন্ন নিয়ম কানুনের জন্য মাঝেমধ্যেই চর্চায় থাকেন কিম৤ জানা গিয়েছে, তাঁর দেশের আজব নিয়মানুসারে সাজপোশাক হতে হবে কিমের মতো। এছাড়াও চুলের ছাঁটও থাকা চাই তাঁর মতো. মাঝেমধ্যেই প্রতিরক্ষা নিয়ে কিমকে নিয়ে চর্চা শোনা যায়। পরমাণু অস্ত্র নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষার কথাও মাঝেমধ্যেই বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে এসেছেন কিম। তবে এবারের ঘটনার প্রভাব কোন দিকে মোড় নেয় তাই এখন দেখার।