Date : 2022-10-01

একদিকে কুয়াশার দাপট। অন্যদিকে বঙ্গে বৃষ্টির ভ্রুকুটি। জলবায়ু বিপদের মুখে, বলছেন আবহাওয়া বিদরা

ওয়েব ডেস্ক : জাঁকিয়ে শীত পড়ছে বঙ্গে তবে কতদিন এই শীতের দাপট বজায় থাকবে তা নিয়ে সংশয় থেকেই যাচ্ছে। আবহাওয়া বিদদের মতে আর বেশিদিন নয়। শীত চলে গিয়ে বঙ্গে বর্ষা আসছে। শুক্রবার থেকে বৃষ্টি হতে পারে সর্বত্র। শনিবারও তার ব্যাতিক্রম না।

আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে জানানো হয়েছে, আগামিকাল থেকেই বদলাবে আবহাওয়া। এক ধাক্কায় বাড়তে পারে তাপমাত্রা। প্রায় ৩ ডিগ্রি পর্যন্ত তাপমাত্রা বাড়বে। শুক্রবার থেকেই শুরু হবে বৃষ্টি, শনিবার সকালেও বৃষ্টি হবে। ফলে শীতের দেখা আর পাওয়া যাবে বলে মনে হচ্ছেনা। কলকাতা সহ বিভিন্ন জেলায় ভারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। বুধবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকবে ২৭.০২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সর্বোনিম্ন তাপমাত্রা ১৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। মঙ্গলবার পর্যন্ত পারদ নামলেও বুধবার পুনরায় তাপমাত্রা স্বাভাবিক হয়েছে। বাতাসে আদ্রতার পরিমান ৯৭ শতাংশ। সকাল থেকেই কুয়াশার দাপট দেখা গিয়েছিল। বেলা বাড়ার সাথে সাথে তা ক্রমশ চলে যায়।

বুধবার সকালে কুয়াশার দাপট থাকায় শহরের বিভিন্ন জায়গায় গাড়ি চলাচলে সমস্যা দেখা গিয়েছে। কলকাতা বিমান বন্দরে দৃশ্যমানতা কম থাকার জন্য বিমান চলাচলে কিছু সময়ের জন্য সমস্যা দেখা দেয়। ধীর গতিতে ওঠা নামা করছে বিমান। কৃত্তিম আলো ক্যাটারে ব্যবহার করা হচ্ছে। বুধবার ভোর সাড়ে চারটে থেকে বিমান চলাচলের ক্ষেত্রে সেফ গার্ড চালু করা হয়েছে।

বারবার পশ্চিমী ঝঞ্ঝার প্রভাবে শীত পিছু হটছে। আবহাওয়া বিদদের মতে যেভাবে ঘনঘন বদলাচ্ছে আবহাওয়া তাতে সামগ্রিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে জলবায়ু। এর প্রভাব পড়বে চাষে। এর ফলে বাজারে জিনিসপত্রের দাম বৃদ্ধি পাবে।

আবহাওয়ার এই পরিস্থিতির জন্য বঙ্গের জলবায়ু বিপদে। নতুন বছরে খরা, অতি বৃষ্টি লেগেই থাকতে পারে। উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুরে জ্বলচ্ছাসের প্রভাবে বন্যা হতে পারে। খরা দেখা দিতে পারে বীরভূম ও নদিয়ায়।