Date : 2022-10-06

বিশ্ববিদ্যালয়ের দরজা খুলতেই আন্দোলন শুরু

বিশ্ববিদ্যালয়ের দরজা খুলতেই আন্দোলন শুরু

নাজিয়া রহমান, রিপোর্টার : বিশ্ববিদ্যালয়ের দরজা খুলতে না খুলতেই বিক্ষোভে সামিল পড়ুয়ারা। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে অফলাইন ক্লাস এখনও পুরোপুরি ভাবে শুরু হয়নি বলে মঙ্গলবার উপাচার্যের ঘরের সামনে বিক্ষোভ দেখালো পড়ুয়ারা। তাদের বক্তব্য, ৩রা ফেব্রুয়ারি খুলেছে বিশ্ববিদ্যালয়। পড়ুয়াদের দাবি, অনেক দূর দূর থেকে পড়ুয়ারা এখানে আসে তাই চলতি সপ্তাহের সোমবার অর্থাৎ ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে পুরোদমে অফলাইন পঠনপাঠন শুরু হবে বলেই জানায় কর্তৃপক্ষ । কিন্তু এখনও সব বিভাগে অফলাইনের ক্লাস পুরোদমে হচ্ছে না বল অভিযোগ পড়ুয়াদের। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের বক্তব্য, এখনও করোনার হাত থেকে সম্পূর্ণ মুক্তি মেলেনি। বিশ্ববিদ্যালয়ের এমন অনেক অধ্যাপক আছেন যাদের শারীরিক অনেক সমস্যা রয়েছে। তারা বদ্ধ ক্লাসরুমে একাধিক পড়ুয়া নিয়ে ক্লাস করতে একটু ভয় পাচ্ছেন। তবে অফলাইন ক্লাসের উপর বিশেষভাবে জোর দেওয়া হচ্ছে। খুব দ্রুতই সব সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে। ১০ ফেব্রুয়ারি কর্তৃপক্ষের একটি বৈঠক আছে। যেখানে এই বিষয়টি নিয়েও আলোচনা হবে।

অন্যদিকে হস্টেল খোলা নিয়ে আন্দোলনে নেমেছে প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা। ইতিমধ্যেই বিভিন্ন বিভাগে অফলাইন ক্লাস শুরু হয়ে গেছে। বিভিন্ন জেলা কিংবা রাজ্যের বাইরে থেকে প্রেসিডেন্সিতে পড়তে আসেন ছাত্র ছাত্রীরা। তাই দূরত্বের কারণে বহু পড়ুয়া অফলাইন ক্লাসে উপস্থিত থাকতে পারছে না।তাই হিন্দু হোস্টেল ও গার্লস হোস্টেল খোলার দাবিতে বিক্ষোভ দেখায় প্রেসিডেন্সির পড়ুয়ারা।
প্রেসিডেন্সি ইউনিভার্সিটি এসএফআই ইউনিটের তরফ থেকে ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২ ক্যাম্পাস জুড়ে বিক্ষোভ মিছিল সহ ডিন অব স্টুডেন্টের কাছে স্মারকলিপি জমা দেওয়া হয়। পড়ুয়াদের দাবি, ২৪ ঘন্টা কেটে গেলেও কোনো উত্তর মেলেনি। ৮ ফেব্রুয়ারি ফের বিক্ষোভ দেখায় পড়ুয়ারা।
ডিনের সাথেও কথা বলে তবে এদিনও কোনও সদুত্তর পাওয়া যায়নি বলে দাবি আন্দোলনকারীদের। তাদের হুঁশিয়ারি অবিলম্বে হোস্টেল খোলা নিয়ে কর্তৃপক্ষ কোনও সিদ্ধান্ত না নিলে বৃহত্তর আন্দোলনের পথ বেছে নেওয়া হবে।

এদিকে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমস্ত ক্যাম্পাসের ঠিকাকর্মীরা ছ- মাস ধরে বেতন না পেয়ে কর্মবিরতিতে সামিল। মঙ্গলবার তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলেজস্ট্রীট ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ দেখান। দ্রুত সমস্যার সমাধান না হলে অনির্দিষ্টকালের জন্য চলবে এই কর্মবিরতি বলেই হুঁশিয়ারি তাদের।