Date : 2022-05-27

নীল-সাদা রঙের স্কুল ইউনিফর্ম আর তাতে থাকবে বিশ্ব বাংলার লোগো। এমনই বিজ্ঞপ্তি সমগ্র শিক্ষা মিশনের

নাজিয়া রহমান, রিপোর্টার : স্কুল ইউনিফর্মের রঙ নীল-সাদা। জামায় থাকবে বিশ্ব বাংলার লোগো। সব সরকারি, সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত ও সরকার পোষিত স্কুলের ইউনিফর্মের রঙ কি এক হয়ে যাবে? যা নিয়ে তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা। এতে স্কুলের ঐতিহ্য বিনষ্ট হতে পারে, ভাবাবেগে আঘাত করা হবে বলে মত শিক্ষক মহলের একাংশের। সরকারি, সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত ও সরকার পোষিত স্কুলগুলিতে সরবরাহ করা হবে নীল সাদা রঙের পোশাক। আর তাতে থাকবে বিশ্ব বাংলার লোগো। এমনই বিজ্ঞপ্তি সমগ্র শিক্ষা মিশনের। এখন প্রশ্ন, তাহলে কি রাজ্যের সমস্ত সরকারি, সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত ও সরকার পোষিত স্কুলগুলিতে ছাত্র ছাত্রীদের ইউনিফর্মের রঙ নীল-সাদা হয়ে যাচ্ছে? এর উত্তর এখনও অজানা। সমগ্র শিক্ষা দফতরের বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী,প্রাক প্রাথমিক থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত পড়ুয়াদের দেওয়া হবে ইউনিফর্ম।

ইউনিফর্মের রঙ হিসেবে বেছে দেওয়া হয়েছে নীল-সাদা রঙ। ছাত্রদের পোশাক সাদা জামা ও নীল প্যান্ট আর মেয়েদের পোশাক সাদা জামা, নীল স্কাট বা টিউনিক ফ্রক এবং নীল সাদা সালোয়ার-কামিজ -ওড়না। ইউনিফর্মে থাকবে বিশ্ব বাংলার লোগো।

ইউনিফর্মের রঙ দেখে অতিসহজেই স্কুল চিহ্নিত করা যায়। এছাড়াও স্কুলের পোশাকের সঙ্গে জড়িয়ে থাকে ভাবাবেগ, ঐতিহ্য। এই পোশাকের মাধ্যমে কোনো স্কুলের নিজস্ব বৈশিষ্ট্য প্রকাশ পাই। ফলে একই রঙের পোশাকের ফলে হারিয়ে যেতে পারে সেগুলি বল মত শিক্ষকমহলের একাংশের।

স্কুলের ঐতিহ্য বিনষ্ট হবে। আবেগে আঘাত করা হবে। এর আগে কোনও সরকারের আমলে এই ধরনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি বলে মত প্রধান শিক্ষক শিক্ষিকাদের সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক চন্দন মাইতি-র। পাশাপাশি বহিরাগত কোন ছাত্র-ছাত্রী অন্য বিদ্যালয় ঢুকে পড়লে চিহ্নিতকরণের কোন ব্যবস্থা রাখা সম্ভব না। এমতাবস্থায় শিক্ষা দপ্তরের ওই বিষয়টিকে পূনর্বিবেচনা করা দরকার বলে মত তার।

স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মাধ্যমে সেই সব পোশাক স্কুলে পৌঁছে দেবে রাজ্য সরকার।প্রতিটি স্কুলের ভিন্ন রঙের পোশাক হওয়ায় পোশাক তৈরী করতে গিয়ে সমস্যা হচ্ছে। এই কারণে সব স্কুলের জন্য নীল-সাদা রঙের পোশাক তৈরি করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলেও মনে করছে অনেকে।