Date : 2022-10-03

বিতর্কের অবসান! বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার শপথ পাঠ করাবেন নবনির্বাচিত বিধায়ককে।

ষষ্ঠী চট্টোপাধ্যায়, সাংবাদিক:- শনিবার বিকেলে রাজ্যপাল জাগদীপ ধনকার টুইট করে জানান বালিগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেসের বিধায়ক বাবুল সুপ্রিয়র শপথ গ্রহনে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। বিধানসভার শপথ বাক্যের অনুমোদন পত্রে স্বাক্ষর করেন তিনি।
নবনির্বাচিত বিধায়কের শপথ গ্রহণ নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছিল রাজভবন এবং নবান্নের মধ্যে। অবশেষে রাজ্যপাল জানালেন ডেপুটি স্পিকার শপথ পাঠ করাবেন বিধায়ক বাবুল সুপ্রিয়কে।

২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে ভারতীয় জনতা পার্টির হয়ে আসানসোল থেকে জয়লাভ করেছিলেন বাবুল সুপ্রিয়। কিন্তু তার সাংসদ পদ দীর্ঘায়ু হয়নি কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বঞ্চনার অভিযোগ এনে তিনি তার মন্ত্রী পদ এবং সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেন।
বালিগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক তথা রাজ্যের পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের প্রয়ানের পর এই কেন্দ্রটি বিধায়ক শূন্য হয়। সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেস এই বিধানসভা কেন্দ্রে বাবুল সুপ্রিয় কে মনোনয়ন দেয়।

গত ১৬ ই এপ্রিল বালিগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচন জয়লাভ করেছিলেন তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয়। নবনির্বাচিত বিধায়কের শপথ বাক্য পাঠ কে করাবেন তা নিয়ে তৈরি হয়েছিল নয়া বিতর্ক। বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় নাকি রাজ্যপাল জাগদীপ ধনকার তা নিয়েশুরু হয় তরজা।

এর আগেও তৃণমূল কংগ্রেসের দুই বিধায়ককের শপথ বাক্য পাঠ করানো নিয়ে বিধানসভার অধ্যক্ষ এবং রাজ্যপালের মধ্যে সংঘাতের পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল। যদিও পরে এই দুই তৃণমূল কংগ্রেসের বিধায়ক এর শপথ বাক্য পাঠ করিয়ে ছিলেন রাজ্যপাল।

সেই বিতর্ক আরো একবার নতুন করে উস্কে দিয়ে বালিগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক বাবুল সুপ্রিয় শপথ বাক্য পাঠ করা নিয়ে তৈরি হয় জটিলতা। অবশেষে শনিবার বিকেলে রাজ্যপাল জাগদীপ ধনকার তিনি টুইট করে জানান বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার আশীষ বন্দোপাধ্যায় নবনির্বাচিত বিধায়কের শপথবাক্য পাঠ করাবেন।

নবনির্বাচিত বিধায়ক বাবুল সুপ্রিয়র শপথবাক্য পাঠ করা হবে তা সেই চিঠিতে উল্লেখ করেননি রাজ্যপাল জাগদীপ ধনকর। বিধানসভা সূত্রের খবর আগামী সপ্তাহেই শপথ নিতে পারেন বালিগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রের নবনির্বাচিত বিধায়ক বাবুল সুপ্রিয়।এবার রাজ্যপালের অনুমতিতে তাঁকে শপথ পাঠ করবেন বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার আশীষ বন্দ্যোপাধ্যায়।