Date : 2022-05-27

হিন্দু হস্টেল থাকাকে কেন্দ্র করে বচসা। ঘটনাস্থলে বিশাল পুলিশ বাহিনি

নাজিয়া রহমান, সাংবাদিক ঃ ফের উত্তেজনা প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়। এবার হিন্দু হস্টেলে থাকাকে কেন্দ্র করে এসএফআই ও আইসি-র সঙ্গে বচসা টিএমসিপির । অভিযোগ, কোচবিহারের বাসিন্দা দুই পড়ুয়া বৃহস্পতিবার হিন্দু হস্টেলে থাকতে আসে। কিন্তু আবাসিকদের একাংশ দু’জনের থাকা নিয়ে আপত্তি তোলে। এমনকি তাদের মাঝ রাতে হস্টেল থেকে বেরও করে দেওয়া হয় বলেও অভিযোগ। এই নিয়ে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ে। পরিস্থিতি সামাল দিতে মোতায়েন করা হয় বিশাল পুলিশ বাহিনি।

গোলমালের সূত্রপাত, বাংলা স্নাতকোত্তরের পড়ুয়া আনোয়ার মহম্মদ ও পলিটন শীলশর্মা নামে দুই ছাত্রের ছাত্রাবাসে থাকা নিয়ে। তাঁদের ছাত্রাবাসে থাকতে দিতে নারাজ ছাত্রদের একটি অংশ। টিএমসিপি-র অভিযোগ, কোচবিহার থেকে আসা দুই ছাত্রকে গভীর রাতে হস্টেল থেকে বের করে দেওয়া হয়। হস্টেলের একাংশ আবাসিকের চাপে তাদের ব্যাগ পত্র নিয়ে বের হয়ে যেতে হয়। তাদের দারোয়ানে সঙ্গে রাত কাটাতে হয়। টিএমসিপি-র আরও বক্তব্য, ওই দুই পড়ুয়ার সঙ্গে টিএমসিপি র সরাসরি যোগ নেই। তারা টিএমসিপি কে সমর্থন করে আার সেই কারনেই তাদের হস্টেল থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে বলে টিএমসিপি র অভিযোগ। যা নিয়ে আইসি আর এসএফআই এর সঙ্গে বচসা বাঁধে টিএমসিপির।

টিএমসিপির তরফ থেকে যে অভিযোগ তোলা হয়েছে তা ভিত্তিহীন বলে মত এসএফআই-এর। এসএফআই এর প্রশ্ন, অনেক পড়ুয়াই হস্টেলে থাকার জন্য আবেদন করে। যাদের নাম তালিকায় আছে। এই দুই ছাত্র এখনই থাকার ব্যবস্থা করে দিতে বলছে। যেটা কি করে সম্ভব? বলে প্রশ্ন এসএফআই এর। পাশাপাশি ওই দুজন তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সমর্থক তাই তাদের হস্টেল থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে বলে যে অভিযোগ তুলছে টিএমসিপি তার কোনও বাস্তবতা নেই বলে মত এসএফআই এর।এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ডিনের কাছে একটি ডেপুটেশন জমা দিয়েছে টিএমসিপির সমর্থকেরা। অন্যদিকে এই ঘটনার প্রতিকার না হলে বৃহত্তর আন্দোলনে নামার হুমকি দিয়েছে এসএফআই।