Date : 2022-12-09

কাবুলে দূতাবাস খোলার ভাবনা ভারতের

পৌষালী সেনগুপ্ত, নিউজ ডেস্ক : কাবুলে দূতাবাস খোলার চিন্তাভাবনা শুরু করেছে ভারত।সূত্রের খবর, তবে কাজ শুরু হলেও শীর্ষ কূটনৈতিক কর্তারা সেখানে যাবেন না। আগের মতো পূর্ণ সক্রিয় থাকবে না দূতাবাস। গত ফেব্রুয়ারি মাসেই নিরাপত্তার বিষয়টি খতিয়ে দেখতে কাবুলে যায় একটি ভারতীয় প্রতিনিধি দল।২০২১ সালের ১৫ আগস্ট কাবুল দখল করে তালিবান। দেশ ছেড়ে পালিয়ে যান আফগান সরকারের প্রেসিডেন্ট আশরফ ঘানি। তার দু’দিন বাদেই অর্থাৎ ১৭ আগস্ট কাবুলে দূতাবাস বন্ধ করে দেয় ভারত।আফগানিস্তানে বসবাস করলে এক দিকে যেমন প্রাণ সংশয়ের আশঙ্কা, অন্য দিকে তালিবান সরকারকে কূটনৈতিক ভাবে এখনও স্বীকৃতি দেওয়া হয়নি। তার জেরেই দূতাবাস বন্ধ করেছিল ভারত। কিন্তু এটাও ঠিক যে, ইউরোপীয় ইউনিয়ন-সহ ১৬টি দেশ সেখানে বন্ধ করে দেওয়া দূতাবাস আবার খুলেছে।

3রাশিয়া, চিন, পাকিস্তান, ইরানের মতো দেশগুলি তো কখনওই বন্ধ করেনি দূতাবাস। বিদেশমন্ত্রকের দাবি দূতাবাস নিয়ে কথাবার্তা এগিয়েছে।আফগানিস্তানের মানুষের পাশে দাঁড়ানো এবং সহায়তা পৌঁছনোর জন্য যোগাযোগ রক্ষার কাজে ব্যবহার করা হতে পারে দূতাবাস।তবে সাউথ ব্লকের পক্ষে নাকি এটাও স্পষ্ট করে দেওয়া হয়েছে, এখনই তালিবানকে স্বীকৃতি দেওয়া হবে না।তবে আগের মতো শীর্ষ কূটনৈতিক কর্তারা যাবেন না সেখানে।দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে তৈরি উপস্থিতি হারিয়ে ফেলে ভারত। কিন্তু এবার সামান্য হলেও পরিস্থিতি পালটেছে। আফগানিস্তানকে মানবিকতার খাতিরে ত্রাণ পাঠাচ্ছে ভারত। এবং সূত্রের খবর, পর্দার আড়ালে তালিবানের সঙ্গে আলোচনা চালাচ্ছে নয়াদিল্লি। ফলে আফগানভূমে পাকিস্তানের চক্রান্ত রুখতে এবার দূতাবাস খুলে নিজের উপস্থিতি জানান দেওয়ার পথে এগোচ্ছে সাউথ ব্লক।তবে একই সঙ্গে প্রশ্ন উঠে আসছে তবে কি এবার তালিবানদের স্বীকৃতি দিতে চলেছে নয়া দিল্লি।উত্তর সময় বলবে।