Date : 2022-06-30

‘আমি ন‌ই, আমরা।’ তৃণমূলের নতুন স্লোগান

সঞ্জু সুর, সাংবাদিক : আমি ন‌ই, আমরা।’ আগামি বছরের পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে তৃণমূল কংগ্রেসের জন্য এই নতুন স্লোগান বেঁধে দিলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার মেদিনীপুর কলেজ মাঠে তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মী সম্মেলনে দলের নেতা থেকে শুরু করে জনপ্রতিনিধিদের পরিষ্কার হুঁশিয়ারি দিয়ে দলনেত্রী জানিয়ে দেন মানুষের জন্য কাজ না করলে “ঘ্যাচাং ফু হবে।”

বছর ঘুরলেই রাজ্যে পঞ্চায়েত নির্বাচন। সেই পঞ্চায়েত নির্বাচনের কথা মাথায় রেখে এখন থেকেই দল কে সাজাতে শুরু করলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মেদিনীপুরের কর্মী সম্মেলন থেকে দলকে দিকনির্দেশ দিলেন তিনি। এদিন মঞ্চ থেকে দলনেত্রী জানিয়ে দেন মেদিনীপুর জেলার চেয়ারম্যান হিসেবে কাজ করবেন বিধায়ক অজিত মাইতি। তিনি সবাইকে নিয়ে যাতে কাজ করেন সেকথাও নেত্রী মঞ্চ থেকেই জানিয়ে দেন। এরপর নেতাদের হুঁশিয়ারি দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বললেন, “নেতা কি গাছ থেকে পড়ে ? না নেতা কাজের মধ্য দিয়ে তৈরি হয়। যারা কুকর্ম করে তাদের কিন্তু মানুষ চিহ্নিত করে, মানুষ তাদের ঘৃণা করে, মানুষ তাদের ভালোবাসে না‌। আর মানুষ যদি ভালো না বাসে, আমি কেন ভালোবাসবো ?” প্রশ্ন তৃণমূল সুপ্রিমোর।

সাংসদ, বিধায়ক থেকে শুরু করে জেলা পরিষদের সদস্যদের হুঁশিয়ারি দিয়ে তিনি আরও বলেন, “একটা জেলা পরিষদের মেম্বার মানে এটা নয় যে আমি হলাম আর আমি আমার মতো করে নিলাম। ঘ্যাচাং ফু হবে। কেটে দেবো। ১ সেকেন্ডে কেটে দেবো। এটা কিন্তু মাথায় রাখতে হবে।” যিনি মানুষের জন্য কাজ করবেন, মানুষের পাশে থাকবেন, দলনেত্রী হিসেবে তিনি তার পাশে থাকবেন। এটা জানিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “যারা মানুষের জন্য কাজ করবে আমি তাদের প্রণাম করবো। আর যারা মানুষের কাজ না করে নিজের কাজ করছেন তারা ঘরে বসে যান।”

পঞ্চায়েতের সদস্য থেকে শুরু করে জেলা পরিষদের সদস্য পর্যন্ত বিভিন্ন সময়ে তৃণমূল কংগ্রেসের এইসব সদস্যদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। আগামী বছরের পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে এইসব দুর্নীতিতে রাশ টানতেই তৃণমূল সুপ্রিমোর এই স্পষ্ট হুঁশিয়ারি বলেই মনে করা হচ্ছে।