Date : 2022-10-02

মাদ্রাসা শিক্ষা পর্ষদের পরীক্ষার ফলপ্রকাশ। ছেলেদের তুলনায় এগিয়ে মেয়েরা।

নাজিয়া রহমান, সাংবাদিক: প্রকাশিত হল মাদ্রাসা শিক্ষা পর্ষদের পরীক্ষার ফল। ৪০ দিনের মাথায় হাইমাদ্রাসা, আলিম ও ফাজিলের ফল। হাইমাদ্রাসায় প্রথম স্থানে মালদহের ছাত্রী সারিফা খাতুন। শুধু তাই নয়, প্রথম দশের ৬ পড়ুয়াই মালদহের।

করোনার জন্য ২০২১ এ পরীক্ষা হয়নি। প্রকোপ নিম্নমুখী হতেই ২০২২এ অফলাইনে পরীক্ষা নিয়েছে মাদ্রাসা শিক্ষা পর্ষদ। চলতি বছর পরীক্ষা শুরু হয় ৭ মার্চ, চলে ২১ মার্চ পর্যন্ত। ৪০ দিনের মাথায় প্রকাশিত হল হাইমাদ্রাসা, আলিম ও ফাজিলের ফল। এবছর মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৭৩৭০৮জন। হাই মাদ্রাসা নিরিখে মোট পরীক্ষার্থী ৫৬৬০০ জন। ছাত্রের সংখ্যা ১৮৩৭৬ জন।ছাত্রীর সংখ্যা ৩৮২২৪ জন। পাশের হার ৮৭.০২%
প্রথম স্থানে মালদহের বটতলা আদর্শ হাই মাদ্রাসার ছাত্রী সারিফা খাতুন। তাঁর প্রাপ্ত নম্বর ৭৮৬। দ্বিতীয় হয়েছেন ইমরানা আফরোজ। তিনি পেয়েছেন ৭৭৫।  তৃতীয় স্থানে মহম্মদ ওয়াকিল আনসারি । তাঁর প্রাপ্ত নম্বর ৭৭৩। 

আলিম পরীক্ষায় মোট পরীক্ষার্থী ১২০৭৪ জন।
ছাত্রের সংখ্যা ৫৩৫৩ জন।ছাত্রীর সংখ্যা ৬৭২১ জন।পাশের হার ৮৯.৮৭%। যুগ্মভাবে প্রথম হয়েছেন মুর্শিদাবাদের সুলতানপুর আলিয়া সিনিয়র মাদ্রাসার মহম্মদ আলফাজ শেখ। উত্তর ২৪ পরগনার মহম্মদ মুজাহিদুল ইসলাম। যাদের
প্রাপ্ত নম্বর ৮৪০।

ফাজিলের ক্ষেত্রে মোট পরীক্ষার্থী ৫০৩৪ জন।
ছাত্রের সংখ্যা ২৬১৪ জন।ছাত্রীর সংখ্যা ২৪২০ জন।পাশের হার ৯০.৬৮%।
প্রথম হয়েছেন মালদহের মহম্মদ আলকামা।যার
প্রাপ্ত নম্বর ৫৫৫। দ্বিতীয় হয়েছেন উত্তর ২৪পরগনার সাবির আলি মোল্লা। যার প্রাপ্ত নম্বর ৫৫৩।

মালদহ, মুর্শিদাবাদ জেলা ভালো ফল করলেও, পিছিয়ে নেই কলকাতা। অন্য বছরের তুলনায় এবছর কলকাতার পরীক্ষার্থীরাও ভালো ফল করেছে বলে জানান বোর্ড প্রেসিডেন্ট।